ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের শর্তে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক করতে প্রস্তুত সৌদি আরব

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের শর্তে ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করতে সৌদি আরব প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফরহাদ।
ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর সিকিউরিটি স্টাডিজের মানামা সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন প্রিন্স ফয়সাল বিন ফরহাদ। ৫ ডিসেম্বর ২০২০। ছবি: আল-আরাবিয়া

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের শর্তে ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করতে সৌদি আরব প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফরহাদ।

গতকাল শনিবার সৌদি সংবাদমাধ্যম আল-আরাবিয়ার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর সিকিউরিটি স্টাডিজের মানামা সম্মেলনে প্রিন্স ফয়সাল বলেছেন, ‘আমরা সবসময়ই ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে প্রস্তুত রয়েছি। আমরা মনে করি, ইসরায়েল এই অঞ্চলে তার অবস্থান নিয়ে থাকবে। কিন্তু, এসব টেকসই করতে আমরা চাই ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হোক। আমাদের এই সমস্যার সমাধান করা প্রয়োজন।’

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মনে করেন, ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের আলোচনার টেবিলে ফিরে আসাটা খুবই জরুরি। তিনি বলেছেন, ‘ফিলিস্তিন রাষ্ট্র এই অঞ্চলে সত্যিকারের শান্তি ফিরিয়ে আনবে এবং এর ওপর জোর দেওয়া উচিত।’

গত সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রচেষ্টায় সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের সঙ্গে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের জন্যে হোয়াইট হাউসের লনে ‘আব্রাহাম চুক্তি’ স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

এর আগে জুনে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আমিরাত চুক্তির কথা ঘোষণা দিয়েছিল। এরপর বাহরাইন একইরকম ঘোষণা দেয়।

এর আগে ১৯৭৯ সালে মিশর ও ১৯৯৪ সালে জর্ডান ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তি চুক্তি করে দেশটিকে স্বীকৃতি দিয়েছিল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের পূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের সিদ্ধান্তের পর ব্যাপক জল্পনা শুরু হয় যে এরপর হয়তো সৌদি আরব সেই পথে এগুবে।

কিন্তু, সৌদি আরব ও ইসরায়েলের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র একটি পূর্ব শর্ত বলে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাত দিয়ে প্রতিবেদন ‍উল্লেখ করা হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh lacking in remittance earning compared to four South Asian countries

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

1h ago