পান্ডিয়ার ঝড়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতল ভারত

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৪ রানের। উইকেটে হার্দিক পান্ডিয়া। চার বলেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নেন এ অলরাউন্ডার। তাতে ওয়ানডে সিরিজে হারের দারুণ প্রতিশোধ নিয়েছে ভারত। তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করলো বিরাট কোহলির দল।
ছবি: রয়টার্স

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৪ রানের। উইকেটে হার্দিক পান্ডিয়া। চার বলেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নেন এ অলরাউন্ডার। তাতে ওয়ানডে সিরিজে হারের দারুণ প্রতিশোধ নিয়েছে ভারত। তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করলো বিরাট কোহলির দল।

রোববার সিডনিতে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়াকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯৪ রান তোলে অজিরা। জবাবে ২ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় সফরকারি ভারত।

লক্ষ্য তাড়ায় এদিন শুরুটা দারুণ করে ভারত। লোকেশ রাহুল ও শেখর ধাওয়ানের ওপেনিং জুটিতেই আসে ৫৬ রান। এরপর রাহুল ফিরে গেলে অধিনায়ক কোহলিকে নিয়ে ৩৯ রানের জুটি গড়ে আউট হন ধাওয়ান। এরপর সাঞ্জু স্যামসন ও হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে ২৫ ও ২৯ রানের দুটি ছোট জুটিতে দলকে এগিয়ে নেন কোহলি। তবে ম্যাচের মোর ঘুরিয়ে দেন পান্ডিয়া।

পঞ্চম উইকেটে শ্রেয়াস আইয়ারের সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন ৪৬ রানের জুটিতে ম্যাচ জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন পান্ডিয়া। ২২ বলে ৪২ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন তিনি। ৩টি চারের সঙ্গে ২টি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। দুটি ছক্কায় তিনি মেরেছেন শেষ ওভারে। ৫ বলে ১২ রান করে তাকে দারুণ সহায়তা করেন আইয়ার।

তবে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন ধাওয়ান। ৩৬ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। ২টি করে চার ও ছক্কায় ২৪ বলে ৪০ রানের ইনিংস খেলেন অধিনায়ক কোহলি। রাহুলের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান।

এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ভারত। শুরুটা ভালোই করে তারা। ছোট ছোট বেশ কিছু জুটিতে এগিয়ে যায় দলটি। ৪৭ রানের ওপেনিং জুটি উপহার দেন ডার্সি শর্ট ও অধিনায়ক ম্যাথিউ ওয়েড। তবে সিংহভাগ রান আসে অধিনায়কের ব্যাট থেকেই। শর্টের অবদান মাত্র ৯। এরপর তৃতীয় উইকেটে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়েন স্টিভ স্মিথ। এরপর চতুর্থ উইকেটে ময়সেস হেনরিকসের সঙ্গেও ৪৮ রানের জুটি উপহার দেন তিনি। তাতেই ১৯৪ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় দলটি।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন অধিনায়ক ওয়েড। ৩২ বলের ইনিংসটি ১০টি চার ও ১টি ছক্কায় সাজান তিনি। ৩৮ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৬ রান করেন স্মিথ। হেনরিকস করেন ২৬ রান। ভারতের পক্ষে এদিন অসাধারণ বোলিং করেছেন থাঙ্গারাসু নাটারাজন। দলের সব বোলার যেখানে ওভার প্রতি ৮ এর উপরে রান দিয়েছেন, সেখানে ৪ ওভারে মাত্র ২০ রান খরচ করেছেন তিনি। উইকেটও পেয়েছেন ২টি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১৯৪/৫ (ওয়েড ৫৮, শর্ট ৯, স্মিথ ৪৬, ম্যাক্সওয়েল ২২, হেনরিকস ২৬, স্টয়নিস ১৬*, স্যামস ৮*; চাহার ০/৪৮, সুন্দর ০/৩৫, শারদুল ১/৩৯, নাটারাজন ২/২০, চাহাল ১/৫১)।

ভারত: ১৯.৪ ওভারে ১৯৫/৪ (রাহুল ৩০, ধাওয়ান ৫২, কোহলি ৪০, স্যামসন ১৫, পান্ডিয়া ৪২*, আইয়ার ১২*; স্যামস ১/৪১, অ্যাবট ০/১৭, টাই ১/৪৭, ম্যাক্সওয়েল ০/১৯, সোয়েপসন ১/২৫, হেনরিকস ০/৯, জাম্পা ১/৩৬)।

ফলাফল: ভারত ৬ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: হার্দিক পান্ডিয়া (ভারত)।

Comments

The Daily Star  | English
remittances received in February

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

3h ago