খেলা

পিএসজিতে এমবাপের ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বললেন তার বাবা

হালের অন্যতম সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপে। প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) প্রাণভোমরা বললেও ভুল হবে না। তবে সময়ের অন্যতম সেরা এ তারকার ভবিষ্যৎ নিয়ে নানা গুঞ্জনই রয়েছে। কারণ এখনও ক্লাবটির সঙ্গে নতুন কোনো চুক্তির আভাস মিলছে না। তবে পিএসজির সঙ্গে নতুন চুক্তি হতে পারে এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন এমবাপের বাবা।
mbappe
ছবি: রয়টার্স

হালের অন্যতম সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপে। প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) প্রাণভোমরা বললেও ভুল হবে না। তবে সময়ের অন্যতম সেরা এ তারকার ভবিষ্যৎ নিয়ে নানা গুঞ্জনই রয়েছে। কারণ এখনও ক্লাবটির সঙ্গে নতুন কোনো চুক্তির আভাস মিলছে না। তবে পিএসজির সঙ্গে নতুন চুক্তি হতে পারে এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন এমবাপের বাবা।

চলতি সপ্তাহেই পিএসজির জার্সিতে নিজের ১০০তম গোল করেছেন এমবাপে। ২০১৭ সালে মোনাকো থেকে তাকে দলভুক্ত করার পর ১৩৭ ম্যাচে খেলে এ কীর্তি গড়েন তিনি। এ ক্লাবের হয়ে তার চেয়ে বেশি গোল দিয়েছেন কেবল পাউলেতা (১০৯), ইব্রাহিমোভিচ (১৫৬) ও কাভানি (২০০)। এমন খেলোয়াড়কে স্বাভাবিকভাবেই হাতছাড়া করতে রাজি নয় পিএসজি।

তাই তার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দলটি। কদিন আগেই কেনেল প্লাসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ক্লাবটির স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দো বলেছেন, 'আমরা কথা বলব। আমরা কথা বলতে চাই। আমার মনে হয় সেও আলোচনা করতে চায়। এটা স্বাভাবিক। সময় আসবে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে পরিষ্কার ধারণা পাওয়া যাবে। আমরা চুপচাপ কথা বলছি, জিনিসগুলি ভালো চলছে, ১০-১৫ দিন আগের তুলনায় আমরা অনেক বেশি পদক্ষেপ নিয়েছি। এটা চলবেই।'

আর পদক্ষেপ নিয়ে যে ক্লাবটি বেশ এগিয়েছে তা বোঝা গিয়েছে এমবাপে সিনিয়রের কথায়। সম্প্রতি টেলিফুটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমবাপের বাবা বলেছেন, 'এটা তাকে বিরক্ত করতে পারে না কারণ সে এখন একটি দুর্দান্ত ক্লাবে খেলছে এবং তার চারপাশে দুর্দান্ত সব খেলোয়াড় রয়েছে। এটা তাকে তার স্বপ্ন এবং তার উচ্চাকাঙ্ক্ষার কাছাকাছি যেতে সাহায্য করছে।'

উল্লেখ্য, ২০১৮ বিশ্বকাপে অসাধারণ পারফরম্যান্স করার পর থেকেই এমবাপেকে দলে পেতে মুখিয়ে আছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। এ নিয়ে বেশ কিছু গুঞ্জনও রয়েছে ফুটবল পাড়ায়। এখন দেখার বিষয় শেষ পর্যন্ত কি সিদ্ধান্ত নেন এ ফরাসি তরুণ।

Comments

The Daily Star  | English

Idrakpur fort: A museum without artefacts

Abdur Rahman Mustakim, a student from Narayanganj, visited the Idrakpur Fort Museum in Munshiganj with his relatives. While he was impressed by the fort itself, he was deeply disappointed by the museum's lack of antiquities

41m ago