খেলা

বিপাকে থাকার কথা স্বীকার করলেন সাকিব

মঙ্গলবার শেষ বলের রোমাঞ্চে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কাছে হেরে যায় খুলনা। বৃহস্পতিবার বেক্সিমকো ঢাকার সঙ্গে পেরে উঠেনি তারা। পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে বাজে ব্যাটিং করা সাকিব এদিনও হন ব্যর্থ
shakib al hasan
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

প্লে অফ নিশ্চিত হয়েছে আগেই। পাঁচ দলের টুর্নামেন্টে তারকায় ভরা জেমকন খুলনার জন্য সেটা খুব একটা কঠিন কাজ ছিলও না। তবু কাজটা সহজে করতে পারেনি তারা। প্লে অফের আগেও টানা দুই হার। তাতে কোয়ালিফায়ার ম্যাচ খেলা শঙ্কায় তাদের। সাকিব আল হাসান বলছেন এতে একটু বিপাকে আছেন তারা।

মঙ্গলবার শেষ বলের রোমাঞ্চে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কাছে হেরে যায় খুলনা। বৃহস্পতিবার বেক্সিমকো ঢাকার সঙ্গে পেরে উঠেনি তারা। এই দুই হার দিয়ে শেষ হয় লিগ পর্বে তাদের ৮ ম্যাচ। তাতে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে এখনো দুইয়ে আছে তারা। তবে এই অবস্থান অন্যদের ম্যাচে নড়ে যেতে পারে। তাতে প্লে অফ খেললেও সাকিবরা কোয়ালিফায়ারের বদলে খেলবেন এলিমিনিটের ম্যাচ। 

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে বাজে ব্যাটিং করা সাকিব এদিনও হন ব্যর্থ। ১৮০ রান তাড়ায় তিনে নেমে ৭ বলে মাত্র ৮ রান করে ফেরেন তিনি।

ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ হলেও বোলিং দিয়ে কিছুটা পুষিয়ে দিচ্ছিলেন আগের ম্যাচগুলোতে। এদিন সাকিবের বোলিং হয় যাচ্ছেতাই। প্রথম ওভারেই নাঈম শেখের হাতে ৪ ছক্কা খেয়ে ২৬ রান দেন তিনি। ৩ ওভারে ৩৬ রান দিয়ে দেওয়ায় চতুর্থ ওভার আর করা হয়নি।

ম্যাচ শেষে এই তারকা জানালেন, এভাবে হারতে থাকলে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে মোমেন্টাম হারিয়ে ফেলবেন তারা,  ‘টি-টোয়েন্টি যেহেতু মোমেন্টামের খেলা তিন দিনের দুই হারে একটা প্রভাব পড়তেই পারে। সুতরাং আমরা আবার পুনর্গঠিত হয়ে  নতুন করে শুরুর চেষ্টা করবো। যেহেতু একটা ম্যাচের ব্যাপার, আমরা যদি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি তাহলে ভালো ফল সম্ভব।’

এদিন উইকেট ছিল বেশ ভালো। বল ব্যাটে আসছিল ভালো গতিতে। আগে ব্যাট করে তাই ঝড় তুলে ঢাকা। এক সময় দুশো ছাড়িয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি করেছিল তারা। খুলনা ১৮০ করতে গিয়ে সেই উইকেটেই বেশ ধুঁকেছে। সাকিব এজন্য দায় দিলেন টপ অর্ডারকে,  ‘আমার মনে হয় উইকেট খুবই ভালো ছিল। দেখেন নিয়মিত উইকেট হারানোর পরও আমরা কত ১৬-১৭ রানে হেরেছি (মূলত ২০ রানে)। আমরা যদি একটা বড় জুটি গড়তে পারতাম বা শুরুটা ভালো করতে পারতাম যা আমরা পারিনি। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে আমরা ভালো ব্যাটিং করিনি। ওটা করতে পারলে ম্যাচটা আরও ভালো অবস্থায় যেতে পারতো শেষ দুই ওভারে আমাদের হাতে যদি উইকেট থাকতো।’

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর ৮ ম্যাচে মাত্র ১০.২৫ গড়ে করেছেন মোটে ৮২ রান! হতশ্রী এই দশা কাটিয়ে কবে রানে ফিরবেন তা নিয়ে খচখচানি আছে তার মনেও। জানালেন চেষ্টায় আছেন দ্রুত রানে ফেরার,  ‘জানিনা (হাসি) দেখি কত দ্রুত ফিরে আসা  যায়। চেষ্টা থাকবে যেন ভালো করতে পারি। বাকিটা দেখা যাক।’

Comments

The Daily Star  | English

Loan default now part of business model

Defaulting on loans is progressively becoming part of the business model to stay competitive, said Rehman Sobhan, chairman of the Centre for Policy Dialogue.

4h ago