খেলা

এটা হবে মুভির মতো: মেসির নাপোলিতে যাওয়া প্রসঙ্গে বোয়েটাং

বার্সেলোনায় সুখে নেই লিওনেল মেসি। চলতি মৌসুমের শুরুতেই তা প্রমাণিত হয়েছে ভালোভাবেই। চেষ্টা করেছিলেন ক্লাব ছাড়তে। কিন্তু পারেননি। হয়তো আগামী মৌসুমে তা করতেও পারেন। নতুন কোনো ক্লাবে দেখা যেতে পারে তাকে। যদি সে ক্লাবটি হয় ইতালির ক্লাব নাপোলি, তাহলে বিষয়টি অনেকটা মুভির মতো হবে বলে মনে করেন তার সাবেক সতীর্থ কেভিন প্রিন্স বোয়েটাং।
ছবি: রয়টার্স

বার্সেলোনায় সুখে নেই লিওনেল মেসি। চলতি মৌসুমের শুরুতেই তা প্রমাণিত হয়েছে ভালোভাবেই। চেষ্টা করেছিলেন ক্লাব ছাড়তে। কিন্তু পারেননি। হয়তো আগামী মৌসুমে তা করতেও পারেন। নতুন কোনো ক্লাবে দেখা যেতে পারে তাকে। যদি সে ক্লাবটি হয় ইতালির ক্লাব নাপোলি, তাহলে বিষয়টি অনেকটা মুভির মতো হবে বলে মনে করেন তার সাবেক সতীর্থ কেভিন প্রিন্স বোয়েটাং।

কিছু দিন আগেই পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চিরবিদায় নিয়েছেন কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা। যাকে নাপোলির 'ঈশ্বর' বলেই ডাকা হয়। নাপোলির যতো অর্জন তার সবই এসেছে এ কিংবদন্তির কল্যাণে। উত্তরসূরি মেসি যদি সে ক্লাবটিতে যোগ দেন তাহলে সেটা হবে ম্যারাডোনাকে সম্মান দেখানোর অন্যতম সেরা উপায় হবে মনে করেন বোয়েটাং।

সম্প্রতি ইএসপিএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাবেক এ বার্সা তারকা বলেছেন, 'মেসি তার ক্যারিয়ার বার্সেলোনায় শেষ করতে যাচ্ছে। (তবে) যদি সে নাপোলিকে ফোন করে বলে "আমি আসব" তাহলে কত আশ্চর্য হবে?'

'তারা আর দশ নম্বর জার্সিটি দেয় না, আমি ম্যারাডোনার দশ নম্বরের সম্মান করতে চাই এবং আমি অর্থ বা কিছুই কিছু না নিয়ে নেপলসে এক বছর বা দু'বছর এসে খেলতে পছন্দ করব।' - যোগ করে আরও বলেন বোয়েটাং।

আর এমনটা হলে তা স্বপ্নের মতোই হবে বলে মনে করেন এ ঘানার এ তারকা। সেক্ষেত্রে মেসি স্বাভাবিকভাবে অনুশীলনেও যেতে পারবেন না বলে মনে করেন তিনি, 'এটা একটা মুভির মতো হবে। তাকে হেলিকপ্টারে করে অনুশীলনে যেতে হবে কারণ তারা লোকজন এতোটাই খুশী হবে যে তাকে পারলে খেয়ে ফেলবে।'

তবে নিজের মেসির জায়গায় থাকলে ঠিকই নাপোলিতে যোগ দিতেন বলেও জানান বোয়েটাং, 'এটি একটি বার্তা হবে, এটি সর্বত্র ইতিহাস হবে। আমি যদি মেসির জুতোতে থাকতে পারতাম। আমি মেসি হতে চাই। আমি নেপলসের প্রেসিডেন্টকে ফোন করতাম এবং আমি তাকে বলতাম।'

Comments

The Daily Star  | English

DNCC completes waste removal on 2nd day

Dhaka North City Corporation has removed 100 percent of the waste generated during Eid-ul-Azha

43m ago