১৪ বছরে ১ টার্নিং পয়েন্টেই সবকিছু

চলচ্চিত্রের গান দিয়েই ২০০৬ সালে উত্থান হয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি’র। 'হৃদয়ের কথা’ সিনেমার 'পৃথিবীর যত সুখ’ গানটির পর তার শুধু এগিয়ে যাওয়ার গল্প।
Nancy
নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। ছবি: শাহরিয়ার কবির হিমেল/ স্টার ফাইল ফটো

চলচ্চিত্রের গান দিয়েই ২০০৬ সালে উত্থান হয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি’র। 'হৃদয়ের কথা’ সিনেমার 'পৃথিবীর যত সুখ’ গানটির পর তার শুধু এগিয়ে যাওয়ার গল্প।

ভালোবসে শ্রোতারা তাকে ‘মধুকণ্ঠী’ বলে ডাকেন। হাবিব ওয়াহিদের সুর-সংগীতেই তার গান সবচেয়ে বেশি শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে।

চলচ্চিত্র, জিজ্ঞেল আধুনিক সবক্ষেত্রেই সাফল্য পেয়েছেন ন্যান্সি। দীর্ঘদিন ধরে প্লেব্যাকে মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন এই কণ্ঠশিল্পী। সিনেমায় তার গাওয়া শ্রোতাপ্রিয় গানের তালিকায় রয়েছে— ‘হৃদয়ের কথা’, ‘পৃথিবীর যত সুখ’, ‘আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা’, ‘বাহির বলে দূরে থাকুক’, ‘দুই দিকে বসবাস’, ‘জ্বলে জ্বলে জোনাকী’, ‘পাগল তোর জন্য রে’, ‘আমি তোমার মনের ভেতর’ ও ‘এতোদিন কোথায় ছিলে’।

মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘প্রজাপতি’ সিনেমার ‘দুই দিকে বসবাস’ গানে কণ্ঠ দিয়ে ২০১১ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ন্যান্সি।

তার উল্লেখযোগ্য আধুনিক গানের অ্যালবামগুলো হলো:  ‘ভালোবাসা অধরা’, ‘রঙ’, ‘মায়াবী আকাশ নীল’, ‘ভালোবাসো বলে’,  ‘শুনতে চাই তোমায়’, ‘ঝগড়ার গান’ ও ‘শুনতে চাই তোমায়’।

জন্মদিনে আজ রোববার দুপুরে দ্য ডেইলি স্টার অনলাইনকে ন্যান্সি বলেন, ‘ এই “পৃথিবীর যত সুখ” গানটি আমার জীবনের সেরা টার্নিং পয়েন্ট। এর ভেতরেই সব অর্জন লুকিয়ে আছে। এর কাছে সবকিছু ম্লান লাগে।’

‘এই গানটার কারণেই আজকের এই আমি’ উল্লেখ করে ন্যান্সি বলেন, ‘আলাদাভাবে সংগীতজীবনের কোনো টার্নিং পয়েন্ট খুঁজে পাই না।’

‘দ্বিধা’-খ্যাত কণ্ঠশিল্পী আরও বলেছেন, ‘আমার দুই মেয়ে গতরাত থেকেই নানা আয়োজন শুরু করেছে। সকাল থেকে তারা অনেকগুলো ড্রেস বদল করেছে। ঘরজুড়ে তাদের এই আনন্দ উপভোগ করছি।’

‘সন্ধ্যায় পরিবারের সবার সঙ্গে বাইরে কোথাও ঘুরতে যাব— এই  হলো  জন্মদিনের আয়োজন,’ যোগ করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Record job vacancies hurt govt services

More than a quarter of the 19 lakh posts in the civil administration are now vacant mainly due to the authorities’ reluctance to initiate the recruitment process.

8h ago