ধর্ষণের পর হত্যা: চট্টগ্রামে ৮ জনের ফাঁসির রায়

২০১৮ চট্টগ্রামে দ্বিতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় আট আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।
Gavel

২০১৮ চট্টগ্রামে দ্বিতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় আট আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

মৃত্যদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন মো. বেলাল হোসেন ওরফে বিজয়, মো. রবিউল ইসলাম ওরফে রুবেল, মো. হাসিবুল ইসলাম ওরফে লিটন, মো. আকসান মিয়া ওরফে হাসান ও মো. সুজন, মইনুল ইসলাম মনু, রবিউল ইসলাম রুবেল ও শাহদাত হোসেন।

সোমবার চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক মো. জামিউল হায়দার এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে শাহাদাত হোসেন সৈকত পলাতক। রায় ঘোষণার সময় সাত জন আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এম এ নাসের বলেন, ধর্ষণ করে হত্যার অপরাধ প্রমাণ হওয়ায় আদালত আট আসামিকে ফাঁসির আদেশ ও একই সঙ্গে প্রত্যেক আসামিকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেছেন।

২০১৮ সালের ২১ জানুয়ারি নগরের আকবরশাহ এলাকার আয়শা মমতাজ মহল নামের একটি ভবনে নিয়ে গিয়ে প্রথমে ধর্ষণ ও পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় নয় বছর বয়সী শিশুটিকে। দ্বিতীয় তলার সিঁড়ির থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শিশুটি আকবরশাহ এলাকার ফাতেমাতুজ জোহরা হেফজুল কোরআন মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ছিল। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে আকবর শাহ থানায় মামলা করেন ২২ শে জানুয়ারি। পুলিশের তদন্তে আট আসামির সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়। ২৫ জানুয়ারি পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আলোচিত এ মামলায় ২৯ সাক্ষীর মধ্যে প্রত্যক্ষদর্শীসহ ১৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয় বলে জানিয়েছেন পিপি।

Comments