একবার নয় বারবার পরাজয়ে বিশ্বাসী ট্রাম্প!

নির্বাচনে স্পষ্ট ব্যবধানে পরাজয়ের আভাস পাওয়ার পর থেকে কোনো প্রমাণ ছাড়াই ক্রমাগত ‘কারচুপি’র অভিযোগ করে আসছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মামলা করেছেন গোটা পঞ্চাশেক। সুপ্রিমকোর্টসহ বিভিন্ন আদালতে মামলাগুলোর অধিকাংশই খারিজ হয়ে গেছে। সর্বশেষ ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের আনুষ্ঠানিকতায়ও পরাজিত হয়েছেন তিনি।
Donald Trump
ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচনে স্পষ্ট ব্যবধানে পরাজয়ের আভাস পাওয়ার পর থেকে কোনো প্রমাণ ছাড়াই ক্রমাগত ‘কারচুপি’র অভিযোগ করে আসছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মামলা করেছেন গোটা পঞ্চাশেক। সুপ্রিমকোর্টসহ বিভিন্ন আদালতে মামলাগুলোর অধিকাংশই খারিজ হয়ে গেছে। সর্বশেষ ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের আনুষ্ঠানিকতায়ও পরাজিত হয়েছেন তিনি।

ট্রাম্প এমন একটি ভাবমূর্তি তৈরি করার চেষ্টা করছেন যে, তিনি পরাজিত হন না বা পরাজিত হতে পছন্দ করেন না। কিন্তু, তার এই মানসিকতায় সত্য হিসেবে যা সামনে আসছে তা হলো ট্রাম্প একবার নয়, একই ঘটনায় বারবার পরাজিত হতে পছন্দ করেন।

একটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তিনি এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০ বার পরাজিত হলেন। নির্বাচনে জেতার লড়াই চালিয়ে যাবেন, তার মানে ঝুলিতে পরাজয়ের সংখ্যা আরও বাড়বে।

গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র কাইলেইগ ম্যাকেনি আরও একবার কথা সেই পুরনো কথাই জানিয়ে বলেছেন, নির্বাচনে জিততে ট্রাম্প আইনি লড়াই চালিয়ে যাবেন।

ফক্স নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইলেকটোরাল কলেজ আনুষ্ঠানিকভাবে ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনের জয় ঘোষণার পর বাইডেনের জয়কে ট্রাম্প স্বীকৃতি দিয়েছেন কি না জানতে চাইলে ম্যাকেনি বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সঙ্গে সম্পর্কিত চলমান মামলা মোকদ্দমা নিয়ে তিনি ব্যস্ত আছেন।’

‘ঘোষণাটি সাংবিধানিক প্রক্রিয়ার একটি ধাপ ছিল’ উল্লেখ করে ম্যাকেনি আরও বলেছেন, ‘আমি এটি তার (ট্রাম্প) ওপর ছেড়ে দিব। মামলা মোকদ্দমার বিষয় জানতে আপনাদের প্রচারণা শিবিরের কাছে খোঁজ নিতে বলবো।’

আনুষ্ঠানিক ঘোষণা অনুযায়ী ইলেকটোরাল কলেজের ৩০৬টি ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন জো বাইডেন। তার বিপরীতে ট্রাম্প পেয়েছেন ২৩২টি ভোট।

সংবাদ সম্মেলনে ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন বিতরণ সম্পর্কে ম্যাকেনি বলেছেন, ভ্যাকসিনের ২ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডোজ বিতরণ করা হয়েছে এবং আগামী শুক্রবার আরও ৪ মিলিয়ন ডোজ দেওয়া হবে।

তিনি বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র চিকিত্সাবিজ্ঞানে একটি অলৌকিক ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেশের প্রথম সারির কর্মীদের দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কিছু কর্মকর্তা প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন বলে জানিয়েছেন যাতে জনসাধারণের মনে বিশ্বাস জাগে।’

তিনি আরও জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প স্বল্প সময়ের মধ্যে একটি নিরাপদ ও কার্যকর ভ্যাকসিনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তিনি সেটি বিতরণের ব্যবস্থাও করেছেন।

ফক্স নিউজে বলা হয়েছে, গত সোমবার জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসেস এর সেক্রেটারি অ্যালেক্স আজার ও ইউএস সার্জন জেনারেল জেরোম অ্যাডামসকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়।

জনসাধারণকে করোনাভাইরাস নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে অ্যালেক্স বলেছেন, ‘প্রায় ৯৫ শতাংশ কার্যকারিতা অনুসারে এই ভ্যাকসিন আপনাকে ভাইরাস থেকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে অসাধারণ... আপনি ভ্যাকসিন নিলে আপনার পরিবার ও দেশ সুরক্ষিত থাকবে।’

গত সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ বিতরণ শুরুর বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটে বলেছিলেন, ‘প্রথম ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। অভিনন্দন যুক্তরাষ্ট্র! অভিনন্দন বিশ্ব।’

Comments

The Daily Star  | English

'Will not spare anyone if attacked'

Quader vows response if any Bangladeshi harmed by Myanmar firing tensions

40m ago