অপহৃত শিশুর মরদেহ পাওয়া গেল মিরপুরের শাহ আলী মার্কেটের সিঁড়িঘরে

অপহরণের দুই দিন পর রাজধানীর মিরপুরে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সকালে শাহ আলী কমপ্লেক্সের ১৪ তলার সিঁড়িঘর থেকে সামনুর হোসেনের (৭) মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
শাহ আলী প্লাজা শপিং কমপ্লেক্স। ছবি: সংগৃহীত

অপহরণের দুই দিন পর রাজধানীর মিরপুরে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সকালে শাহ আলী কমপ্লেক্সের ১৪ তলার সিঁড়িঘর থেকে সামনুর হোসেনের (৭) মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সামনুর মিরপুর-৬ এলাকার বাসিন্দা রোকসানা পারভিনের ছেলে।

মিরপুর থানার উপপরিদর্শক তামিম রহমান জানান, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাসার সামনে ব্যাডমিন্টন খেলছিল সামনুর। সেখান থেকে আর বাসায় ফিরেনি সে। রাতে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে রোকসানার কাছে ফোন আসে। পরদিন তিনি মিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

তামিম রহমান জানান, অভিযোগ পেয়ে মিরপুর থানা ও ডিবি পুলিশ আলাদাভাবে তদন্তে নামে। এর মধ্যে অপহরণকারীরা মুক্তিপণের দাবি ১ লাখ ৩০ হাজার টাকায় নামিয়ে আনে। রোকসানা বিকাশের মাধ্যমে কয়েক ধাপে ৬০ হাজার টাকা দেন।

আজ সকালে মিরপুর-১০ এর শাহ আলী কমপ্লেক্স মার্কেটের ১৪ তলার সিঁড়িঘরে শিশুর নিথর দেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে, সেখানে সামনুরকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানান তিনি।

সামনুরের মা এ ঘটনায় শুক্রবার পাঁচ জনকে আসামি করে মামলা করেন। পুলিশ এখন পর্যন্ত চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে। তারা হলেন--নুর আলম, ইউসুফ, খায়রুল ও মাহফুজ। মামলার অপর আসামি ইয়াসিন আরাফাত রকি পলাতক আছেন।

পুলিশ জানায়, রোকসানা ও তার প্রথম স্বামীর সন্তান সামনুর হোসেন। তারা ইতালি থাকতেন। ছেলের জন্ম সেখানেই। সামনুরের নয় মাস বয়সে রোকসানার স্বামী মারা যান। এরপর সন্তানসহ তিনি দেশে ফিরে আসেন। এক বছর পর আরেক ব্যক্তির সঙ্গে রোকসানার বিয়ে হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে নুর আলম রোকসানার দ্বিতীয় স্বামীর সৎ ভাই ও মাহফুজ দুঃম্পর্কের আত্মীয়।

শিশুটির মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

PM reaches New Delhi on two-day state visit to India

Prime Minister Sheikh Hasina arrived in New Delhi today on a two-day state visit to India

35m ago