শীর্ষ খবর

চিনিকল বন্ধের প্রতিবাদে শ্যামপুরে অর্ধদিবস হরতাল পালন

শ্যামপুরসহ দেশের ছয়টি চিনিকল বন্ধের প্রতিবাদে রংপুরে অর্ধদিবস হরতাল পালন করেছেন শ্রমিক ও আখচাষিরা।
অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে শ্যামপুর চিনিকল এলাকায় মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ। ছবি: স্টার

শ্যামপুরসহ দেশের ছয়টি চিনিকল বন্ধের প্রতিবাদে রংপুরে অর্ধদিবস হরতাল পালন করেছেন শ্রমিক ও আখচাষিরা।

আজ বুধবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর চিনিকল এলাকায় এ হরতাল কর্মসূচি পালিত হয়।

শ্যামপুর চিনিকল অ্যামপ্লয়িজ ইউনিয়ন এবং আখচাষি কল্যাণ সমিতির ডাকে হরতালের সমর্থনে এদিন সকাল থেকে স্থানীয় আখচাষি ও চিনিকল কর্মচারী-শ্রমিকেরা চিনিকলের সম্মুখ ফটকে অবস্থান নেন। সেখানে তারা আখমাড়াই কার্যক্রম চালুসহ বন্ধ ছয় চিনিকল খুলে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

এর আগে সকাল থেকে চিনিকল এলাকায় খণ্ড খণ্ড মিছিল বের করেন শ্রমিক ও চাষিরা। এসময় হরতালে সমর্থন জানিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখেন। শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষিদের আহ্বানে এই হরতালে যোগ দেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে শ্যামপুর চিনিকল এলাকায় মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ।

সমাবেশে আখচাষি কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান সাগর বলেন, ‘গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই চিনিকলগুলোকে বন্ধ করে দেওয়ার পাঁয়তারা করা হচ্ছে। শ্যামপুর চিনিকলের ৮০০ শ্রমিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, ১২ হাজার আখচাষিসহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত প্রায় দেড় লাখেরও বেশি মানুষের জীবন-জীবিকা হুমকির মুখে পড়েছে।’

শ্যামপুর চিনিকল অ্যামপ্লয়িজ ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বুলু আমিন বলেন, ‘১৫টি চিনিকলের মধ্যে নয়টি চালু করলেও এখনও ছয়টি বন্ধ রয়েছে। তারমধ্যে শ্যামপুর চিনিকল একটি। অবিলম্বে এই চিনিকল চালু করে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধসহ পাঁচ দফা দাবি মেনে নিতে হবে।’

দাবি আদায় না হলে রেলপথ, রাজপথ অবরোধসহ আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার হুঁশিয়ারি দেন আন্দোলনরত সংগঠনের নেতারা।

গত ১ ডিসেম্বর দেশের ১৫টি চিনিকলের মধ্যে ছয়টি চিনিকলে আখমাড়াই বন্ধ রেখে নয়টি চিনিকলে মাড়াই চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন।

Comments

The Daily Star  | English

Phase 2 UZ Polls: AL working to contain feuds, increase turnout

Shifting focus from its earlier position to keep relatives of its lawmakers from the upazila election, the ruling Awami League now seeks to minimise internal feuds centering on the polls and increase the voter turnout.

8h ago