শিপ্রা দেবনাথের মাদক মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে পুলিশের নারাজি

নিহত অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের সহকর্মী শিপ্রা দেবনাথের বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলায় র‌্যাবের জমা দেওয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদনে নারাজি দিয়েছে মামলার বাদীপক্ষ পুলিশ।
Shipra_Debnath1.jpg
শিপ্রা দেবনাথ। ছবি: সংগৃহীত

নিহত অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের সহকর্মী শিপ্রা দেবনাথের বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলায় র‌্যাবের জমা দেওয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদনে নারাজি দিয়েছে মামলার বাদীপক্ষ পুলিশ।

পুলিশের আবেদন আমলে নিয়ে শুনানির জন্য পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আদালত। এসময় শ্রিপ্রা দেবনাথ আদালতে হাজির ছিলেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর একটায় কক্সবাজার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালত-২-এর (রামু) বিচারক দেলোয়ার হোসেনের আদালত এ আদেশ দেন।

শিপ্রার আইনজীবী অরূপ বড়ুয়া তপু বলে দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে, কত তারিখ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে তা নিশ্চিত হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত সময় লাগবে বলে জানান অরূপ বড়ুয়া তপু।

অরূপ বড়ুয়া তপু বলেন, ‘মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ডের রেশ ধরে শিপ্রা দেবনাথের বিরুদ্ধে পুলিশের দায়ের করা মামলার বিচার কাজের নির্ধারিত দিন ছিল আজ বৃহস্পতিবার। এতে মামলার বাদীপক্ষ (পুলিশ) র‌্যাবের জমা দেওয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি দিয়েছেন। আদালত আবেদনটি আমলে নিয়ে পরবর্তীতে শুনানির জন্য দিন ধার্য করার কথা বলেন। পাশাপাশি আদালত মামলার আসামি শিপ্রা দেবনাথকে স্থায়ী জামিন দিয়েছেন।’

এদিকে আদালতের আদেশ নিয়ে অসন্তুষ্টির কথা জানিয়ে শিপ্রা দেবনাথ আদালত প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে অন্যায় হয়েছে। এটা নিয়ে সন্তুষ্টির কিছুই নাই। আমরা আসলে সিনহাকে ফিরে পাব না, সবচাইতে বড় সত্য এটা। তাই সন্তুষ্টির কিছুই নাই।’

পরবর্তী বিচারের জন্য আদালতের দিকে চেয়ে আছেন বলে জানান তিনি।

এর আগে, গত ১৩ ডিসেম্বর মাদক আইনে দায়ের করা এ মামলার তদন্ত শেষে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে র‌্যাব। তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে দাখিল করা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, শ্রিপ্রার বিরুদ্ধে পুলিশ মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ এনে যে মামলা করেছে সে সব অভিযোগের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি।

ওই প্রতিবেদনে শ্রিপাকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিয়ে বেকসুর খালাস দেওয়ার আবেদন জানানো হয়।

গত ৩১ জুলাই টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর এপিবিএন চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই কক্সবাজারের মেরিনড্রাইভ সড়ক সংলগ্ন হিমছড়ি এলাকার নীলিমা রিসোর্টে অভিযান চালিয়ে বিদেশি মদ ও কমপিউটারসহ কয়েকটি ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস জব্দ দেখিয়ে সিনহার সহযোগী শিপ্রা দেবনাথকে গ্রেপ্তার করে হিমছড়ি পুলিশ ফাঁড়ির একদল পুলিশ। পরদিন ১ আগস্ট শিপ্রার বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে রামু থানায় একটি মাদক মামলা দায়ের করে। আদালত প্রথমে মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশকে দায়িত্বভার দেন। পরে র‍্যাবের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত তদন্ত সংস্থা পরিবর্তন করে র‍্যাবকে তদন্তের আদেশ দেন।

Comments

The Daily Star  | English

PM visits areas devastated by Cyclone Remal

Prime Minister Sheikh Hasina today visited the most affected areas in the country's south by Cyclone Remal

2h ago