জেমিসনের ৫ শিকার, আজহার-রিজওয়ানের ব্যাটে রান

ক্রাইস্টচার্চে রোববার দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান অলআউট হয়েছে ২৯৭ রানে
Kyle Jamieson
ছবি: ব্ল্যাকক্যাপস টুইটার

ওপেনাররা আনতে পারেননি জুতসই শুরু। তবে তিনে নেমে বড় ইনিংস খেলার দিকেই এগুচ্ছিলেন আজহার আলি। মিডল অর্ডারে ব্যর্থতার মাঝে মোহাম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে পান বড় জুটি। রান পেয়েছেন ফাহিম আশরাফও। তবে কাজ অসমাপ্ত রেখে ফিরেছেন সবাই। ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানি ব্যাটিং দমিয়ে রাখার কাজটা করেন কিউই পেসার কাইল জেমিসন।

ক্রাইস্টচার্চে রোববার দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান অলআউট হয়েছে ২৯৭ রানে। দলের হয়ে আজহার করেন সর্বোচ্চ ৯৩, দারুণ ছন্দে থাকা রিজওয়ানের ব্যাট থেকে আসে ৬১ রান, ফাহিম আউট হন ৪৮ রান করে।

৬৯ রানে ৫ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের নায়ক জেমিসন।

সকালে টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাট করতে দিয়েছিল স্বাগতিকরা। ফলও মিলে যায় হাতেনাতে। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই রানের খাতা খোলার আগে বিদায় নেন ওপেনার শান মাসুদ। টিম সাউদির বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন তিনি।

এরপর আজহার-আবিদ আলির জুটি টিকে বেশ কিছুটা সময়। দুজনেই হয়ে যান থিতু। ২০তম ওভার থেকে এই জুটি ভেঙ্গে উইকেট নেওয়া শুরু জেমিসনের। ২৫ রান করে তার বলে সাউদির হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় আবিদের।

এরপর তড়িঘড়ি বিদায় নেন হারিস সোহেল আর আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ফাওয়াদ আলম। এই দুই উইকেটও যায় দীর্ঘদেহী জেমিসনের পকেটে।

আচমকা তৈরি চাপ থেকে দলকে উদ্ধারে নামেন আজহার-রিজওয়ান। দুজনের জুটি জমে যায় বেশ। পাকিস্তান এগুতে থাকে বড় রানের দিকে। আজহার রয়েসয়ে খেললেও রিজওয়ান ব্যাট করতে থাকেন ওয়ানডে মেজাজে।

রিজওয়ানের আউটেই ভেঙ্গেছে দুজনের ৮৮ রানের জুটি। ঘাতক আবার সেই জেমিসন। এবার জেমসনের বলে কিপারের হাতে জমা পড়েন পাকিস্তানের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক।

ফাহিম আশরাফকে নিয়ে আরেক জুটিতে সেঞ্চুরির দিকেই এগুচ্ছিলেন আজহার। ম্যাট হেনরির বলে নার্ভাস নাইটিজের শিকার তিনি। বাকিটা সময় রান বেড়েছে ফাহিম ও জাফর গোহারের (৩৪) ছোট দুই ইনিংসে।

ফাহিমকে ফিরিয়ে জেমিসন তুলেন ক্যারিয়ারে তার তৃতীয় ৫ উইকেট। ট্রেন্ট বোল্ট-সাউদি মিলে ইনিংসের বাকিটা মুড়ে দিতে বেশি সময় নেননি। পাকিস্তান অলআউট হওয়ার সঙ্গে শেষ হয় দিনের খেলাও।

Comments

The Daily Star  | English