খেলা

বিধ্বংসী জেমিসন, হোয়াইটওয়াশ পাকিস্তান

ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট নিউজিল্যান্ড জিতেছে ইনিংস ও ১৭৬ রানের বিশাল ব্যবধানে

প্রেক্ষাপট তৈরি হয়ে গিয়েছিল আগের দিনই। কেইন উইলিয়ামসনের ডাবল সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে চড়া নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামার আর আভাস ছিল না। দরকারও হয়নি। প্রথম ইনিংসের মতো পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসও মুড়ে দিয়েছেন কাইল জেমিসন। ইনিংস ব্যবধানে হেরে তাই হোয়াইটওয়াশ হয়েছে মোহাম্মদ রিজওয়ানের দল।

ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট নিউজিল্যান্ড জিতেছে ইনিংস ও ১৭৬ রানের বিশাল ব্যবধানে। ৩৬২ রানে পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৮৬ রানে অলআউট হয়ে গেছে সফরকারীরা। 

দলকে জেতাতে প্রথম ইনিংসে ৬৯ রানে ৫ উইকেট নেওয়া জেমিসন এবার ৪৮ রানে নেন ৬ উইকেট। ক্য ম্যাচে নিলেন ১১ উইকেট।

এতে দুই টেস্টেই দাপট দেখিয়ে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্টের দৌড়ে অনেকখানি এগিয়ে গেল উইলিয়ামসনের দল।

পাকিস্তানের ২৯৭ রানের জবাবে উইলিয়ামসনের দাপটে ৬৫৯ রান করে ইনিংস ছেড়েছিল কিউইরা। তৃতীয় দিনে ৩৬২ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাট করতে নেমেই ১ উইকেট হারায় পাকিস্তান।

চতুর্থ দিনে ১ উইকেটে ৮ রান নিয়ে খেলতে নেমে দ্রুতই আগেরদিনের নাইটওয়াচম্যানকে হারায় তারা। ট্রেন্ট বোল্টের বলে দলের ১৭ রানে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মোহাম্মদ আব্বাস।

আজহার আলির সঙ্গে জুটি বেধে উইকেটে থাকার মরিয়া চেষ্টা ছিল আবিদ আলি। বেশ কিছুক্ষণ টিকেও ছিলেন। কিন্তু জেমিসনের গোলায় কাত হয়ে ৭৭ বলে ২৬ করে বিদায় তার। প্রথম ইনিংসে রান পাওয়া আজহার দ্বিতীয় ইনিংসেও থিতু হয়ে গিয়েছিলেন। হারিস সোহেলের সঙ্গে জুটি গড়ার চেষ্টা করেছেন। জেমিসন তাদের দুজনকেই ফিরিয়েছেন উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানিয়ে। হারিস ১৫ আর আজহার ফেরেন সর্বোচ্চ ৩৭ রান করে।

দলের রান তিন অঙ্কে যাওয়ার আগে অধিনায়ক  রিজওয়ানকেও বোল্ড করে ফেলেন জেমিসন। এরপর আর ম্যাচ লম্বা হওয়ার অবস্থা ছিল না। জাফর গোয়াহারকে নিয়ে চেষ্টা চালিয়েছিলেন ফাওয়াদ আলম। তাকে ফেরান বোল্ট। ফাহিম আশরাফ আর জাফরের দুই ইনিংস পরে কেবল ব্যবধানই কমিয়েছে। 

Comments