শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশ

‘ধর্ষকের বিচারের ক্ষেত্রে যেন অন্য কোনো প্রভাব প্রশ্রয় না পায়’

রাজধানীতে ‘ও’ লেভেল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় ধর্ষকের সর্বোচ্চ বিচারের দাবিতে ধানমন্ডিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। এসময় ঢাকার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।
Against Rape.jpg
ধানমন্ডি ২৭ নম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে শিক্ষার্থীরা মিছিল নিয়ে কলাবাগান থানার সামনে গিয়ে অবস্থান নেন। ছবি: স্টার

রাজধানীতে ‘ও’ লেভেল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় ধর্ষকের সর্বোচ্চ বিচারের দাবিতে ধানমন্ডিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। এসময় ঢাকার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

আজ শুক্রবার বিকাল ৪টায় ধানমন্ডি ২৭ নম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে শিক্ষার্থীরা মিছিল নিয়ে কলাবাগান থানার সামনে গিয়ে অবস্থান নেন।

বিক্ষোভকারীরা দ্রুত সময়ের মধ্যে ধর্ষকের বিচার দাবি করেছেন। তারা বলেছেন, ‘দেশে বিচারহীনতা ও আইনি দীর্ঘসূত্রিতার কারণে ধর্ষণের মতো অপরাধ দিন দিন বেড়েই চলছে।’

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী তৌসিফ ইসলাম বলেন, ‘ধর্ষকের দ্রুত বিচারের দাবিতে আমরা আজকে সমাবেশ করেছি। আমরা চাই, জনগণের যে ন্যায্য বিচার পাওয়ার অধিকার, সেখানে অন্য কোনো চাপে পড়ে সরকার যেন আপোষ না করে। আমরা চাই দেশের আইনি ব্যবস্থায় ধর্ষণের মতো অপরাধের যেন সর্বোচ্চ শাস্তি হয়।’

আরেক শিক্ষার্থী আদ্রিতা বলেন, ‘ধর্ষণের মতো অপরাধের ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে আমরা দেখি নারীকেই বার বার দোষারোপ করা হয়। সে কোথায় গেছে, কেন গেছে, কোন পোশাকে ছিল, এসব নিয়ে কথা বলা হয়। যেখানে অপরাধের আলামত পাওয়া গেছে, অপরাধী নিজেই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন, সেখানে অন্য কোনো প্রশ্ন উঠতে পারে না। আমরা চাই, দ্রুত সময়ের মধ্যে যেন ধর্ষকের বিচার নিশ্চিত হয়। ধর্ষকের বিচারের ক্ষেত্রে যেন অন্য কোনো প্রভাব প্রশ্রয় না পায়।’

সমাবেশে উপস্থিত মাস্টারমাইন্ড স্কুলের শিক্ষক নিশাত রিতা হক দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘একজন অভিভাবক ও শিক্ষক হিসেবে আমি এখানে প্রতিবাদ জানাতে এসেছি। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক একটা ঘটনা। আমাদের দেশে মায়ের কোলের শিশু থেকে শুরু করে, কিশোরী, তরুণী এমনকি বৃদ্ধারাও নিরাপদ না।’

‘নারীর প্রতি সহিংসতা এখন এতো বেশি বেড়ে গেছে যে, এর বিরুদ্ধে সামাজিকভাবেই লড়াই করতে হবে। শুধু নারীরা না, নারী-পুরুষ সবাইকেই এর বিরুদ্ধে সরব হতে হবে। নারীর নিরাপত্তার দাবিতেই আমরা আজকে এখানে এসেছি’, বলেন তিনি।

মাস্টারমাইন্ড স্কুলের আরেক শিক্ষক সালেহীন কাদির বলেন, ‘আমি এখানে আন্দোলনকারীদের সমর্থন জানাতে এসেছি। আমি মনে করি, ধর্ষকরাই সবচেয়ে বড় অপরাধী। সরকার মৃত্যুদণ্ডের কথা বলেছে। আমি মনে করি- দ্রুত সময়ের মধ্যে ধর্ষককে বিচারের আওতায় আনতে হবে।’

ধর্ষণের প্রতিবাদে আগামীকাল সন্ধ্যা ৬টায় ধানমন্ডিতে মোমবাতি মিছিল করা হবে বলেও জানান শিক্ষার্থীরা।

Comments

The Daily Star  | English

Iran's President Raisi, foreign minister killed in helicopter crash

President Raisi, the foreign minister and all the passengers in the helicopter were killed in the crash, senior Iranian official told Reuters

3h ago