যেভাবে দেখবেন ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবের সিনেমা

আজ থেকে শুরু হয়েছে ‘ঊনবিংশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০২১’। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’- শ্লোগান নিয়ে পর্দা উঠেছে উৎসবের। আর তা চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। মুজিববর্ষ উপলক্ষে এবারের আসরটি উৎসর্গ করা হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি।

আজ থেকে শুরু হয়েছে ‘ঊনবিংশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০২১’। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’- শ্লোগান নিয়ে পর্দা উঠেছে উৎসবের। আর তা চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। মুজিববর্ষ উপলক্ষে এবারের আসরটি উৎসর্গ করা হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি।

উৎসবে উদ্বোধনী চলচ্চিত্র ‘স্প্রিং ব্লোসম’। আজ সন্ধ্যা ৬টা থেকে চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হবে। এটি পরিচালনা করেছেন সুজান্না লিনডন। একজন টিনেজ তরুণীর সঙ্গে একজন প্রবীণের জাগতিক সম্পর্কের টানাপড়েন নিয়ে নির্মিত হয়েছে এটি। ২০২০ সালের কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল ‘স্প্রিং ব্লোসম’।

এবার উৎসবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী করা হবে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ও নৃত্যশালা মিলনায়তন, শিল্পকলার নন্দন থিয়েটার (মুক্তমঞ্চ), বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্স এবং সীমান্ত স্কয়ার সিনেপ্লেক্স।

যেভাবে দেখা যাবে উৎসবে স্থান পাওয়া সিনেমা

এবারের উৎসবে মোট ৭৩টি দেশের ২২৫টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। চলচ্চিত্র দেখার কিছু নিয়মাবলী উল্লেখ করেছে কর্তৃপক্ষ। তার মধ্যে জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকাল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে দেখতে পারবেন। সেক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। এর বাইরে, সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য টিকেট মূল্য ৫০ টাকা।

কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে সিনেমা দেখানো হবে সকাল ১০টা থেকে। এখানে প্রদর্শিত হবে শিশুতোষ চলচ্চিত্র। অভিভাবকরাও শিশুদের সঙ্গে এই চলচ্চিত্রগুলো বিনামূল্যে উপভোগ করতে পারবেন।

জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনের সব প্রদর্শনী সবাই বিনামূল্যে উপভোগ করতে পারবেন। আসন সংখ্যা সীমিত থাকায় আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে।

শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ও নৃত্যশালার প্রদর্শনীগুলোও সবার জন্য উন্মুক্ত। আসন সংখ্যা সীমিত থাকায় আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে।

বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্স এবং সীমান্ত স্কয়ার সিনেপ্লেক্সে সিনেমাগুলো দেখা যাবে ৩৫০ টাকায়।

শিল্পকলার নন্দনমঞ্চের প্রদর্শনীগুলোও সবার জন্য উন্মুক্ত।

আয়োজকরা নিশ্চিত করেছেন এবারের উৎসবে মিলনায়তনের পাশাপাশি অনলাইনেও চলচ্চিত্র দেখার সুযোগ আছে। লাকভেলকি অনলাইন প্লাটফর্মে উৎসব চলাকালীন সময়ে নির্বাচিত চলচ্চিত্রগুলো দেখানো হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Lifts at public hospitals: Where Horror Abounds

Shipon Mia (not his real name) fears for his life throughout the hours he works as a liftman at a building of Sir Salimullah Medical College, commonly known as Mitford hospital, in the capital.

6h ago