দিলুর পরিবার প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা প্রত্যাশা করছেন

হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা জনপ্রিয় মঞ্চ ও নাট্যাভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলুর চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। দীর্ঘ দিন অভিনয় থেকে দূরে থাকা এই অভিনেতার পক্ষে এত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য এখন নেই। তাই পরিবারের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছেন। তারা প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা চান।
অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু। ছবি: সংগৃহীত

হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা জনপ্রিয় মঞ্চ ও নাট্যাভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলুর চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। দীর্ঘ দিন অভিনয় থেকে দূরে থাকা এই অভিনেতার পক্ষে এত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য এখন নেই। তাই পরিবারের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছেন। তারা প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা চান।

আজ শনিবার রাতে দ্য ডেইলি স্টারকে এ কথা বলেছেন মুজিবুর রহমান দিলুর বড় ছেলে অয়ন রহমান।

অয়ন রহমান বলেন, ‘আমার বাবা শুধু অভিনেতা নন। তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা পরিবার থেকে আর্থিক সাহায্য চাইছি। বাবাকে দুটি থেরাপি দিতে হবে। কম করে হলেও চার থেকে পাঁচ লাখ টাকার প্রয়োজন। এ ছাড়া, হাসপাতালের বিল তো আছেই।’

বিটিভির কালজয়ী  ধারাবাহিক নাটক ‘সংশপ্তক’-এ মালু চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের মাঝে সাড়া ফেলেছিলেন অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু। এখনো অনেকের কাছে তিনি মালু নামেই পরিচিত।

অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু  অসুস্থ হয়ে রাজধানাীর একটি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে তাকে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে তাকে আইসিউতে রাখা হয়েছে। তিনি ডাক্তার ওমর ফারুকের অধীনে চিকিৎসাধীন।

মুজিবুর রহমান দিলুর  ফুসফুসের সমস্যা দেখা দিয়েছে। ফুসফুসের ৭০ ভাগই আক্রান্ত হয়েছে। অবস্থা বেশ সংকটাপন্ন। তার শরীরে প্লাজমাও দেওয়া হয়েছে। তবে, তার করোনার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। এছাড়াও, তিনি নিউমোনিয়াতেও আক্রান্ত।

 গত ১২ জানুয়ারি তার শরীরের অবস্থার অবনতি হলে তাকে উত্তরার একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ১৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা থেকে তিনি আছেন ইউনাইটেড হাসপাতালে।

এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু স্ত্রী, দুই পুত্র এবং এক কন্যাকে নিয়ে রাজধানীর উত্তরায় বসবাস করেন। কিন্তু, অভিনয় থেকে দূরে আছেন বেশকিছু দিন ধরে। অভিনয়ে না থাকলেও একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাহী পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছেন।

এক সময় তিনি মঞ্চে ও টেলিভিশন নাটকে সরব ছিলেন। মঞ্চে তার অভিনীত আলোচিত কিছু নাটক হলো-আমি গাধা বলছি, জনতার রঙ্গশালা, আরেক ফাল্গুন, ওমা কি তামাশা, নানা রঙের দিনগুলি ইত্যাদি।

টেলিভিশনে সংশপ্তক নাটকটি করেই তিনি আলোচনায় আসেন। এছাড়া তথাপি, সময় অসময় নামের দুটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করেও বেশ পরিচিতি পান। বিটিভির অসংখ্য এক ঘণ্টার নাটকে তিনি অভিনয় করেছেন।

ছোটদের সংগঠন টুনটুনির সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করেছেন। মুজিবুর রহমান দিলু একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। এ ছাড়া, নাট্যকার ও নাট্যপরিচালক হিসেবেও কাজ করেছেন।

এর আগে, ২০০৫ সালে হঠাৎ করেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তখন দীর্ঘ দিন হাসপাতালে ছিলেন। সেই সময়ে গুলেন বারি সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়ে অনেকদিন কোমায় ছিলেন। পরে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনযাপনও করেছেন। ১৯৭২ সালে তিনি বিটিভিতে অভিনেতা হিসেবে তালিকাভুক্ত হন।

আরও পড়ুন:

সংশপ্তকের মালু হাসপাতালে

Comments