খেলা

থিরিমান্নে-ম্যাথিউসের লড়াই, লিচের ঘূর্ণি জাদু, শেষ বেলায় নাটকীয়তা

তবে বিস্ময়কর কিছু না ঘটলে নাগালের মধ্যে থাকা জয় হাতছাড়া হওয়ার কোনো কারণ নেই ইংল্যান্ডের।
jack leach
ছবি: টুইটার

২০১৩ সালের পর ফের টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পেলেন লাহিরু থিরিমান্নে। তার বিদায়ের পর একপ্রান্ত আগলে শ্রীলঙ্কাকে ফলো-অন পার করালেন এক বছর পর সাদা পোশাকে খেলতে নামা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। তাকে আউট করে লঙ্কানদের ইনিংস মুড়িয়ে দিলেন বাঁহাতি স্পিনার জ্যাক লিচ। সহজ লক্ষ্য পাওয়া ইংল্যান্ড অবশ্য শেষ বিকালে হারাল খেই। তবে বিস্ময়কর কিছু না ঘটলে নাগালের মধ্যে থাকা জয় হাতছাড়া হওয়ার কোনো কারণ নেই তাদের।

রবিবার গল টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৩৮ রান। দলটির দুই ওপেনার জ্যাক ক্রলি ও ডম সিবলি ফের করেন হতাশ। প্রথম ইনিংসের মতো এবারও তারা সাজঘরে ফেরেন এক অঙ্কের রানে। দুজনকেই আউট করেন লঙ্কান বাঁহাতি স্পিনার লাসিথ এম্বুলদেনিয়া। এরপর অযথা রান নিতে গিয়ে উইকেট বিসর্জন দেন অধিনায়ক জো রুট। ফলে ষষ্ঠ ওভারে ১৪ রানের মধ্যে ৩ উইকেট খুইয়ে ফেলে সফরকারীরা। আলোকস্বল্পতায় খেলা বন্ধ হওয়ার আগে মাটি কামড়ে পড়ে থেকে নয় ওভার পার করেন জনি বেয়ারস্টো ও ড্যান লরেন্স।

৭৪ রানের লক্ষ্য পাওয়া ইংলিশদের আগামীকাল শেষ দিনে করতে হবে আরও ৩৬ রান। হাতে রয়েছে ৭ উইকেট। ক্রিজে আছেন বেয়ারস্টো ১১ ও লরেন্স ৭ রানে। এম্বুলদেনিয়া ২ উইকেট নিতে খরচ করেন ১৩ রান।

এর আগে স্বাগতিকদের দ্বিতীয় ইনিংস থামে ৩৫৯ রানে। আগের দিনের ৭৬ রান নিয়ে খেলতে নামা ওপেনার থিরিমান্নে তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। তাকে বিদায় করেন অফ স্পিনার ডম বেস। ২৫১ বলে ১১১ রানের ইনিংসে ১২ চার মারেন তিনি। লঙ্কানদের বাকিরা আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকলেও ম্যাথিউস ছিলেন স্থিতধী। রুটের হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়ার আগে ২১৯ বলে ৭১ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন তিনি। তার উইকেটটিসহ শ্রীলঙ্কার শেষ ৪ উইকেট একাই নেন লিচ। সবমিলিয়ে তার বোলিং ফিগার ৪১.৫-৬-১২২-৫।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(চতুর্থ দিন শেষে)

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস: ১৩৫

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ৪২১

শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংস: (আগের দিন ১৫৬/২) ১৩৬.৫ ওভারে ৩৫৯ (থিরিমান্নে ১১১, এম্বুলদেনিয়া ০, ম্যাথিউস ৭১, চান্দিমাল ২০, ডিকভেলা ২৯, শানাকা ৪, হাসারাঙ্গা ১২, দিলরুয়ান ২৪, আসিথা ০*; ব্রড ০/১৪, কারান ২/৩৭, বেস ৩/১০০, উড ০/৪৯, লিচ ৫/১২২, রুট ০/১৯, লরেন্স ০/১০)

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: (লক্ষ্য ৭৪) ১৫ ওভারে ৩৮/৩ (ক্রলি ৮, সিবলি ২, বেয়ারস্টো ১১*, রুট ১, লরেন্স ৭*; এম্বুলদেনিয়া ২/১৩, দিলরুয়ান ০/১৬)।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclones now last longer at sea, on land

Remal was part of a new trend of cyclones that take their time before making landfall, are slow-moving, and cause significant downpours, flooding coastal areas and cities. 

1h ago