দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্বামীকে পুড়িয়ে হত্যায় স্ত্রীর ফাঁসি, শ্বশুর-শাশুড়ির যাবজ্জীবন

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্বামীকে গরম তেলে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় স্ত্রীকে ফাঁসি ও শ্বশুর-শাশুড়িকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ নোয়াখালীর জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ এই রায় দেন।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্বামীকে গরম তেলে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় স্ত্রীকে ফাঁসি ও শ্বশুর-শাশুড়িকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ নোয়াখালীর জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ এই রায় দেন।

নোয়াখালী জেলা জজ আদালতের সরকারী কৌশলী গুলজার আহাম্মদ জুয়েল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া আবুল হোসেন ও তার স্ত্রী লিলি বেগমকে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে ফাঁসির আদেশ পাওয়া কুলসুম বেগম ও তার মা লিলি পলাতক রয়েছেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ থেকে জানা যায়, বেগমগঞ্জের নরোত্তমপুর গ্রামের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শহীদ উল্যাহর সঙ্গে একই গ্রামের আবুল হোসেনের মেয়ে বিবি কুলসুমের বিয়ে হয়েছিল ১৩ বছর আগে। ঢাকা ও নোয়াখালীতে স্থাবর-অস্থাবর সব মিলিয়ে সম্পদশালী ছিলেন শহীদ উল্যাহ। বিয়ের পর পরই সম্পদ হাতিয়ে নিতে শহীদ উল্যাহকে চাপ দিচ্ছিলেন কুলসুম। এ কারণে স্বামীর ওপর ক্ষিপ্ত ছিলেন কুলসুম। এ নিয়ে ২০১৮ সালের ৩ মে তাদের মধ্যে কলহ হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শহীদ উল্যাহর শরীরে গরম তেল ঢেলে দিয়ে কুলসুম পালিয়ে যান। দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে প্রথমে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে ১২ মে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিনই তিনি মারা যায়।

Comments

The Daily Star  | English

Afif exposing BCB’s bitter truth

Afif Hossain has been one of the most fortuitous cricketers in the national fold since his debut in February 2018.

7h ago