আন্তর্জাতিক

কৃষক বিদ্রোহ: ‘এটা অপমান, আমরা প্রজাতন্ত্র দিবসে ট্রাক্টর মিছিল বের করব’

ভারতে বিতর্কিত তিন কৃষি আইন নিয়ে কৃষক ইউনিয়ন এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে ১১তম দফার আলোচনা অসমাপ্তভাবে শেষ হয়েছে। কৃষক নেতারা ঘোষণা দিয়েছেন, তারা প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রস্তাবিত ট্রাক্টর মিছিল বের করবেন।
ট্রাক্টর নিয়ে বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে ভারতীয় কৃষকদের আন্দোলন। ৯ ডিসেম্বর ২০২০। ছবি: রয়টার্স

ভারতে বিতর্কিত তিন কৃষি আইন নিয়ে কৃষক ইউনিয়ন এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে ১১তম দফার আলোচনা অসমাপ্তভাবে শেষ হয়েছে। কৃষক নেতারা ঘোষণা দিয়েছেন, তারা প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রস্তাবিত ট্রাক্টর মিছিল বের করবেন।

আজকের বৈঠক শেষ হওয়ার পর কৃষক নেতারা বলেন, মন্ত্রীরা তাদের সঙ্গে যে আচরণ করেছেন তাতে তারা ‘অপমানিত’ বোধ করছেন।

আজ শুক্রবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে এ তথ্য জানিয়েছে।

কৃষক মজদুর সংঘ কমিটির এসএস পাণ্ডের সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন, ‘মন্ত্রী আমাদের সাড়ে তিন ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বাধ্য করেছেন। এটা কৃষকদের অপমান। তিনি এসে আমাদের সরকারের প্রস্তাব বিবেচনা করতে বলেন এবং সভার প্রক্রিয়া শেষ করার কথা জানান।’

এসএস পাণ্ডের জানান, কৃষক আন্দোলন শান্তিপূর্ণভাবে অব্যাহত থাকবে।

ভারতীয় কৃষক ইউনিয়নের মুখপাত্র রাকেশ টিকায়েত বলেন, প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রস্তাবিত ট্রাক্টর মিছিল পরিকল্পনা অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে।

কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে শুক্রবারের বৈঠক নিয়ে রাকেশ টিকায়েত বলেন, ‘সরকার দুই বছরের জন্য কৃষি আইন বাস্তবায়ন স্থগিত রাখার প্রস্তাব দিয়েছে। সরকার বলেছে, যদি কৃষক ইউনিয়ন এই প্রস্তাব গ্রহণ করতে প্রস্তুত থাকে তাহলে পরবর্তী দফার বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে।’

তবে, কৃষক ইউনিয়ন বৈঠকের আগেই সরকারের এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানায়, কৃষক এবং সরকারের মধ্যে ১১ দফা আলোচনা সত্ত্বেও শিগগির এ অচলাবস্থা অবসানের কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। বর্তমানে পরিস্থিতি এতটাই বিপর্যস্ত যে উভয় পক্ষের মধ্যে পরবর্তী দফার আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে কিনা সে বিষয়ে কোনো নিশ্চয়তা নেই।

ভারতীয় কৃষক ইউনিয়নের সুরজিৎ সিং ফুল বলেন, ‘সরকার পরবর্তী বৈঠকের কোনো তারিখ নির্ধারণ করেনি।’

সূত্র জানায়, কৃষক ইউনিয়নের সঙ্গে বৈঠকে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার ‘চিৎকার’ করে বলেন ১৮ মাসের জন্য কৃষি আইন স্থগিত রাখা সরকারের সবচেয়ে ভালো প্রস্তাব।

কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত অবশ্য বলেছেন, ইউনিয়নগুলো আবার নিজেদের মধ্যে সরকারের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করবে।

তিনি আরও বলেন, কৃষক ইউনিয়নগুলো সরকারের প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করতে মিলিত হলেও কৃষি আইন পুরোপুরি বাতিলের দাবিতে তারা অনড় থাকবেন।

 
আরও পড়ুন:

Comments

The Daily Star  | English

Iranian Red Crescent says bodies recovered from Raisi helicopter crash site

President Raisi, the foreign minister and all the passengers in the helicopter were killed in the crash, senior Iranian official told Reuters

4h ago