খেলা

সাকিব-তামিমদের পরিশ্রম দেখে অবাক ইয়াসির

বয়স ৩০ ছাড়িয়েছে চার জনেরই। কিন্তু মাঠে এখনও নিজেদের সেরাটা দিতে কোনো কৃপণতা নেই তাদের। অনুশীলনে তো বরাবরই বাড়তি পরিশ্রম করে থাকেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। কম যান না সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তামিম ইকবালরাও। আর তাদের এতো কঠিন পরিশ্রম দেখে বিস্মিত দলের তরুণ তারকা ইয়াসির আলি রাব্বি।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

বয়স ৩০ ছাড়িয়েছে চার জনেরই। কিন্তু মাঠে এখনও নিজেদের সেরাটা দিতে কোনো কৃপণতা নেই তাদের। অনুশীলনে তো বরাবরই বাড়তি পরিশ্রম করে থাকেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। কম যান না সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তামিম ইকবালরাও। আর তাদের এতো কঠিন পরিশ্রম দেখে বিস্মিত দলের তরুণ তারকা ইয়াসির আলি রাব্বি।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে আছেন প্রায় দুই বছর হয়। যদিও এখনও কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি ইয়াসিরের। প্রাথমিক স্কোয়াডে সাম্প্রতিক সময়ে প্রায় নিয়মিত থাকছেন। এবার উইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দলেও আছেন। আর প্রাথমিক ক্যাম্পে সিনিয়র খেলোয়াড়দের নিবেদন দেখে প্রতিনিয়তই অবাক হচ্ছেন এ তরুণ।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে উইন্ডিজ সিরিজ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন সাকিব। লম্বা সময় মাঠের বাইরে থাকার পরই নিজেকে পূর্ণ ফিট রেখেছেন তিনি। উল্টো আরও ওজন কমিয়ে নিজেকে ঝরঝরা করেছেন। মাহমুদউল্লাহও ওজন কমিয়েছেন বেশ। লকডাউনের সময়ে নিজের ফিটনেস নিয়ে দারুণ কাজ করেছেন মুশফিকও। পিছিয়ে নেই সাকিবও। 

সিনিয়রদের এমন কঠিন পরিশ্রম করতে দেখে বিস্মিত ইয়াসির বলেন, 'আমি যতই দেখি সিনিয়র ভাইদেরকে ততই অবাক হই। তারা এই পর্যায়ে এসেও উনারা যে কঠিন পরিশ্রমটা করেন সাকিব ভাই, তামিম ভাই, মুশফিক ভাই। মুশফিক ভাইয়ের কথা তো আমরা সবাই জানি। বিশেষ করে তামিম ভাই সাকিব ভাই যেভাবে নিজেদেরকে মেইন্টেইন করে।'

বাংলাদেশ জাতীয় দলের বর্তমান খেলোয়াড়দের মধ্যে কিছুটা ব্যতিক্রম ইয়াসির। দীর্ঘদেহী এ খেলোয়াড়কে খুব সহজেই সবার চেয়ে আলাদা করা যায়। যে কারণে ফিল্ডিংয়ের সময় কিছুটা সমস্যার মোকাবেলা করতে হয় তাকে। অধিনায়করা তাকে এমন জায়গায় রাখার চেষ্টা করেন যেখানে কিছুটা কম বল যায়। 

আর তাই এ সমস্যা থেকে উতরাতে সিনিয়রদের কাছ থেকে নিজেকে মেইন্টেইন করার উপায় শিখে নেওয়ার চেষ্টাও করছেন এ তরুণ, 'তাদের সঙ্গে আমি সবসময় কথা বলি ওই সব বিষয় নিয়ে যে, কীভাবে আপনারা নিজেদেরকে মেইন্টেইন করেন। এখন আসলে যে যুগ, যে প্রতিযোগিতা তো নিজেকে ওই রকমভাবে মেইন্টেইন না করলে খেলাটা খুব কঠিন হয়ে যায়। তো সবাইকে দেখেই সবার কাছে থেকে ভালো ভালো জিনিস নেয়ার চেষ্টা করছি।'

পাশাপাশি সাকিব-তামিমদের সঙ্গে একই ড্রেসিং রুম শেয়ার করতে পেরে দারুণ রোমাঞ্চিতও ইয়াসির, 'আগে কখনও সাকিব ভাই, মুশফিক ভাই, তামিম ভাই, রিয়াদ ভাই সবাইকে এক সঙ্গে পাইনি। প্রথম থেকেই ওয়ানডে সিরিজের ক্যাম্প থেকেই খুব রোমাঞ্চিত ছিলাম যে আমি তাদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম ভাগাভাগি করে নিতে পারছি। এখন টেস্টে এসে দেখা যাচ্ছে উনাদের তিনজনকে আবার পাচ্ছি। সত্যিই আমি রোমাঞ্চিত।'

Comments