শীর্ষ খবর
পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান

রংপুর ও পটুয়াখালীতে অবৈধ ৮ ইটভাটা ভেঙে আরও ৭টিতে জরিমানা

পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে রংপুরে সাতটি এবং পটুয়াখালীতে একটি অবৈধ ইটভাটা ভেঙে দিয়েছে। একই সঙ্গে জেলা দুটিতে আরও মোট সাতটি ইটভাটা থেকে মোট ২৯ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
পটুয়াখালীতে একটি অবৈধ ইটভাটা ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। ছবি: স্টার

পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে রংপুরে সাতটি এবং পটুয়াখালীতে একটি অবৈধ ইটভাটা ভেঙে দিয়েছে। একই সঙ্গে জেলা দুটিতে আরও সাতটি ইটভাটা থেকে মোট ২৯ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

টানা দুই দিন অভিযান চালিয়ে রংপুর পরিবেশ অধিদপ্তর জেলার দুটি উপজেলায় সাতটি অবৈধ ইটভাটা সম্পূর্ণ ভেঙে দিয়েছে এবং আরও পাঁচটি ইটভাটা থেকে মোট ২৭ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

ঢাকা জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোজিনা আক্তারের নেতৃত্বে রংপুর পরিবেশ অধিদপ্তর এই অভিযান পরিচালনা করে। ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন ২০১৯ লঙ্ঘনের দায়ে সাতটি ইটভাটা সম্পূর্ণ ভেঙে দিয়ে আরও পাঁচটির মালিকের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন রংপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মেজবাবুল আলম।

ভেঙে দেওয়া হয়েছে রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার এমটিবি ব্রিক্স, উত্তর বাউচন্ডি এলাকার এসএসবি ব্রিক্স, রাজারামপুর এলাকার বিবিএল ব্রিক্স, পীরগঞ্জ উপজেলার মোনাইল এলাকার টিএমএম ব্রিক্স, এবিএইচ ব্রিক্স, আরএসবি ব্রিক্স এবং পার্বতীপুর এলাকার জেবিএফ ব্রিক্স।

জরিমানা আদায় করা হয়েছে বদরগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর পাঠানপাড়া এলাকার আরবিএল-২ ব্রিক্স থেকে আট লাখ টাকা, সদর উপজেলার হরিদেবপুর এলাকার এমইউবি ব্রিক্স থেকে তিন লাখ টাকা, পীরগঞ্জ উপজেলার গোপীনাথপুর টুকুরিয়া এলাকার এমএইচবি ব্রিক্স থেকে সাত লাখ টাকা, এমএএইচ ব্রিক্স থেকে ছয় লাখ টাকা এবং হিলি এলাকায় মোস্তা ব্রিক্স থেকে তিন লাখ টাকা।

পটুয়াখালীতে সম্পূর্ণ ভেঙে দেওয়া হয়েছে সদর উপজেলার কমলাপুর ইউনিয়নের রুহান ইটভাটাটি। এছাড়াও, একই এলাকায় নাহিন ব্রিকফিল্ড ও জৈনকাঠী এলাকার এএন্ডকোং ব্রিকফিল্ডকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে এ ধরণের মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে ।

Comments