ইরান ইউরেনিয়াম ২০ শতাংশ সমৃদ্ধ করছে

ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ২০ শতাংশে উন্নীত করেছে। ইতোমধ্যে দেশটির হাতে রয়েছে ১৭ কিলোগ্রাম ২০ শতাংশ সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম।
Iran nuclear plant
ছবি: সংগৃহীত

ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ২০ শতাংশে উন্নীত করেছে। ইতোমধ্যে দেশটির হাতে রয়েছে ১৭ কিলোগ্রাম ২০ শতাংশ সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম।

ইরানের স্পিকার মোহাম্মদ বাগের গালিবাফের বরাত দিয়ে রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত তাসনিম নিউজ এজেন্সি গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে।

সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফোরদো পরমাণু প্রকল্প পরিদর্শন শেষে স্পিকার গালিবাফ এ ঘোষণা দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক আরব-আমেরিকান সংবাদমাধ্যম আল মনিটর মন্তব্য করেছে, ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ২০ শতাংশে উন্নীত করায় বাইডেন প্রশাসনের পরমাণু চুক্তিতে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা জটিল হয়ে উঠবে।

সংবাদমাধ্যমটি আরও জনিয়েছে, ইরানের ইউরেনিয়াম ২০ শতাংশ সমৃদ্ধকরণ পরমাণু চুক্তি-বিরোধী। চুক্তি অনুযায়ী ইরান ইউরেনিয়াম ৩ দশমিক ৬৭ শতাংশের বেশি সমৃদ্ধ করতে পারবে না।

সংবাদ প্রতিবেদন মতে, যুক্তরাষ্ট্র ও এর মধ্যপ্রাচ্যের মিত্রদেশগুলো মনে করে ইরান পরমাণু বোমা বানানোর চেষ্টা করছে। পরমাণু বোমা বানাতে ৯০ শতাংশ সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম প্রয়োজন।

এতে আরও বলা হয়েছে, সাধারণত পরমাণুশক্তি রিঅ্যাকটর চালাতে ইউরেনিয়াম ৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ সমৃদ্ধ করতে হয়। ইউরেনিয়াম ২০ শতাংশ সমৃদ্ধ করার পর তা সহজেই ৯০ শতাংশে উন্নীত করা যায়।

২০১৮ সালে তৎকালীন ট্রাম্প প্রশাসন পরমাণু চুক্তি থেকে সরে এসে ইরানের ওপর কঠোর অবরোধ আরোপ করলে উপসাগরীয় দেশটি ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার কাজ নতুন করে শুরু করার ঘোষণা দিয়েছিল।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন গত বুধবার দায়িত্ব নেওয়ার পর গণমাধ্যমকে বলেছেন, ইরান পরমাণু চুক্তি যথাযথভাবে মেনে চললে বাইডেন প্রশাসন চুক্তিতে ফিরে আসবে।

এর জবাবে গতকাল ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, ‘ইরান যখন চুক্তি মেনে চলছিল যুক্তরাষ্ট্র তখন তা ভঙ্গ করেছে। তাই, কাকে প্রথম উদ্যোগ নিতে হবে?’

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

6h ago