আন্তর্জাতিক

পরিবারের কেউ সরকারের সিদ্ধান্তে ভূমিকা রাখবে না: বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তার পরিবারের কোনো সদস্য সরকারি কোনো সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভূমিকা রাখবে না। বুধবার পিপল ম্যাগাজিনে প্রকাশিত বাইডেনের সাক্ষাৎকারের বরাত দিয়ে সিএনএনের খবরে একথা জানানো হয়।
ছবি: রয়টার্স

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তার পরিবারের কোনো সদস্য সরকারি কোনো সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভূমিকা রাখবে না। বুধবার পিপল ম্যাগাজিনে প্রকাশিত বাইডেনের সাক্ষাৎকারের বরাত দিয়ে সিএনএনের খবরে একথা জানানো হয়।

সরকারি সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রক্রিয়ায় পরিবারের সদস্যদের অনৈতিক হস্তক্ষেপ এড়াতে পুরনো ওবামা-বাইডেন প্রশাসনের মতো করে নতুন সরকার পরিচালনার কথা জানান নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট।

বাইডেন বলেন, ‘আমাদের পরিবারের কেউই সরকারের কোনও উদ্যোগ বা পররাষ্ট্র নীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হবেন না। এখানে কারও কাজ নেই। কেবল আত্মীয়দের সঙ্গে তারা দেখা করতে আসতে পারবেন।’

এর আগে, পদের অপব্যবহার করে ব্যক্তিগতভাবে সুবিধা নিতে প্রেসিডেন্ট রাজী নন বলে তার অবস্থান পরিষ্কার করেন।

তিনি বলেন, ‘আমার মনে আছে কয়েক বছর আগে একজন অফিশিয়াল বলেছিলেন, আপনি নিজের বাড়িতে বা গাড়িতে যে জ্বালানি ব্যবহার করেন তার খরচের কিছু অংশ সিনেট থেকে নিতে পারবেন। আমি তখন না করে দিয়েছিলাম।’

বাইডেনের ছোট ভাই ফ্রাঙ্ক প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে একটি বিজ্ঞাপন ছেপেছিল। হোয়াইট হাউজ গত বৃহস্পতিবার জানায়, নিয়ম অনুযায়ী কোনো ব্যবসায় প্রেসিডেন্টের সংশ্লিষ্টতার কথা কোথাও বলা হয়নি। ফ্রাঙ্কের বিজ্ঞাপনের ব্যাপারে হোয়াইট হাউজ সরাসরি মন্তব্য না করলেও, বাইডেন আজ তার পরিবারের সদস্যদের রাষ্ট্রীয় কাজে সংশ্লিষ্ট না থাকার বিষয়টি পরিষ্কার করলেন।

গত শুক্রবার হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, বাইডেন নৈতিকভাবে ইতিহাসের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রশাসন গঠনের বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তিনি বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট ও তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলার সুযোগ পাচ্ছি না।’

নিজের ব্যবসায়িক স্বার্থে সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হোয়াইট হাউজকে ব্যবহার করতেন। এবার অবশ্য হোয়াইট হাউজ থেকে স্পষ্ট বলে দেওয়া হয়েছে, বাইডেন কোনো ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রমের সঙ্গে তার নাম ব্যবহারের অনুমতি দেননি।

Comments

The Daily Star  | English