আন্তর্জাতিক

কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে টুইট, গ্রেটার বিরুদ্ধে এফআইআর দিল্লি পুলিশের

ভারতে বিতর্কিত তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে চলমান কৃষক আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে সম্প্রতি টুইট করেন জলবায়ু পরিবর্তন কর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। এ ঘটনায় গ্রেটার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ।
গ্রেটা থুনবার্গ। ছবি: রয়টার্স

ভারতে বিতর্কিত তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে চলমান কৃষক আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে সম্প্রতি টুইট করেন জলবায়ু পরিবর্তন কর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। এ ঘটনায় গ্রেটার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে এ তথ্য জানায়।

পপতারকা রিহান্নার টুইটের পরপরই গ্রেটা থুনবার্গ তার টুইটার একাউন্টে কৃষক আন্দোলনের প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে ওই পোস্ট করেন।

মঙ্গলবার রাতে প্রথম টুইটে গ্রেটা থুনবার্গ লিখেন, ‘আমরা ভারতের #FarmersProtest সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করছি’ এবং ভারতে চলমান কৃষক আন্দোলন ও দিল্লি সীমান্তে কীভাবে ইন্টারনেট বন্ধ করা হয় তা নিয়ে সিএনএন-এর একটি প্রতিবেদন শেয়ার করেন।

 

পরবর্তী টুইটে গ্রেটা থুনবার্গ লিখেন, ‘আপনি যদি তাদের সাহায্য করতে চান সেজন্য এখানে একটি আপডেট টুলকিট দেওয়া হলো যা ভারতীয়রা দিয়েছেন। (তারা তাদের আগের নথি সরিয়ে ফেলেছে। কারণ এটি পুরনো ছিল।) #StandWithFarmers #FarmersProtest।’ এই পোস্টের সঙ্গে গ্রেটা কৃষক আন্দোলন নিয়ে বিস্তারিত তথ্যযুক্ত একটি ডকুমেন্ট শেয়ার করেন।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, দিল্লি পুলিশ গ্রেটা থুনবার্গের বিরুদ্ধে ১৫৩এ ধারা (ধর্ম, বর্ণের ভিত্তিতে বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা প্রচার করা) এবং ১২০বি ধারায় (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র) এফআইআর দায়ের করেছে।

দিল্লি পুলিশ যে জলবায়ুকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের কারেছে তিনি এ বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় (এমইএ) একটি বিবৃতি জারি করে সেলিব্রিটিদের হ্যাশট্যাগের বিষয়টি সংবেদনশীল করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানানোর একদিন পর পুলিশ এ উদ্যোগ নিয়েছে।

বুধবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, এটা ‘দুর্ভাগ্যজনক’ যে কিছু গ্রুপ আন্তর্জাতিক সমর্থন অর্জন করছে।

এমইএ-এর মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তবের পোস্ট করা এক বিবৃতিতে ভারত বলেছে, এ ধরনের বিষয়ে মন্তব্য করার আগে আমরা তথ্য যাচাই করার আহ্বান জানাই।

আরও পড়ুন:

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka brick kiln

Dhaka's toxic air: An invisible killer on the loose

Dhaka's air did not become unbreathable overnight, nor is there any instant solution to it.

12h ago