খেলা

এটাই উপায়: বার্সেলোনা কোচ

প্রথমার্ধেই পিছিয়ে পড়েছিল বার্সেলোনা। পরে লিওনেল মেসির নৈপুণ্যে উল্টো এগিয়ে যায় দলটি। কিছুক্ষণ পর সমতায় ফেরে রিয়াল বেতিস। তবে শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সিস্কো ত্রিনকাওর গোল জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে কাতালানরা। কয়েক দফা ধাক্কা খাওয়ার এমন নাটকীয় জয় পাওয়ায় দারুণ খুশি দলের প্রধান কোচ রোনাল্ড কোমান। আর দলের মানসিকতাকেই সঠিক উপায় বলছেন এ ডাচ কোচ।
koeman
ছবি: টুইটার

প্রথমার্ধেই পিছিয়ে পড়েছিল বার্সেলোনা। পরে লিওনেল মেসির নৈপুণ্যে উল্টো এগিয়ে যায় দলটি। কিছুক্ষণ পর সমতায় ফেরে রিয়াল বেতিস। তবে শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সিস্কো ত্রিনকাওর গোল জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে কাতালানরা। কয়েক দফা ধাক্কা খাওয়ার এমন নাটকীয় জয় পাওয়ায় দারুণ খুশি দলের প্রধান কোচ রোনাল্ড কোমান। আর দলের মানসিকতাকেই সঠিক উপায় বলছেন এ ডাচ কোচ।

সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি ম্যাচেই পিছিয়ে পড়ে রোমাঞ্চকর জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বার্সেলোনা। কদিন আগে কোপা দেল রের ম্যাচে ৮৮ মিনিট পর্যন্ত দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও জয় তুলে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করে দলটি। আর দলের এমন সব জয় খেলোয়াড়দের মানসিকতার পরিবর্তন দেখছেন কোমান, 'এ ফলাফল আমাদের নিজেদের বিশ্বাস বাড়াতে সাহায্য করবে এবং দল জয়ের জন্য তাদের মানসিকতাকে ব্যবহার করছে। এটাই উপায়।'

আগের দিন রিয়াল বেতিসের মাঠে তাদের ৩-২ গোলের ব্যবধানে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। ম্যাচের শেষ দিকে জয়সূচক গোলটি করেন ত্রিনকাও। তার নৈপুণ্যেও দারুণ খুশি এ কোচ, 'সে অনেক তরুণ। তার বার্সেলোনার মতো বড় লেভেলের ক্লাবে মানিয়ে নিতে হবে। আমরা তাকে ম্যাচে সময় দিচ্ছি। শেষ কয়েকটি ম্যাচে সে দুর্ভাগ্যবশত কিছু সুযোগ নষ্ট করেছে। আজ সেই পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। এটা তার জন্য এবং আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।'

তবে ম্যাচের ভাগ্য বদলে দিয়েছেন মেসিই। বদলি খেলোয়াড় হিসেবে ৫৭তম মিনিটে মাঠে নামার পরই যেন বদলে যায় দলটি। দুই মিনিটেই দলকে সমতায় ফেরান। এরপরের দুটি গোলের উৎসও এ আর্জেন্টাইন তারকা। স্বাভাবিকভাবেই অধিনায়কের প্রশংসায় মাতেন এ ডাচ কোচ, 'মেসির সঙ্গে বার্সেলোনা আরও ভালো দল। আরও বেশি কার্যকরী। সে অনেক বছর ধরেই এখানে আছে এবং প্রমাণ করেছে সেই দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়।'

পয়েন্ট তালিকায় সপ্তম স্থানে থাকা রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে আগের দিন মেসি ছারাও আরও বেশ কয়েকজন নিয়মিত খেলোয়াড় ছাড়াই একাদশ সাজিয়েছিলেন কোমান। স্বাভাবিকভাবেই এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সব খেলোয়াড়দের সুযোগ করে দিতেই এমনটা করেছেন বলে জানান এ কোচ, 'আমরা খেলোয়াড়দের পর্যাপ্ত সময় দিতে অদল-বদল করে থাকি। যদিও আরাহোর ইনজুরি আমাদের সবকিছু জটিল করে দিয়েছে। আমাদের মানসিকতা তুলে ধরতে হবে। কঠিন ম্যাচগুলো আমাদের দক্ষতা এবং চরিত্র দিয়ে জিততে হবে।'

এদিন সেন্টার ব্যাক ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ংকে খেলান কোমান। অন্যদিকে তরুণ সেন্টার ব্যাক অস্কার মিঙ্গুয়েজাকে খেলান রাইট ব্যাক পজিশনে। এমনটা করার কারণও জানিয়েছেন কোমান, 'সেন্টার ডিফেন্ডারে আমি একজন ডান পায়ের এবং একজন বাঁ পায়ের খেলোয়াড় থাকা পছন্দ করি। ডেস্টের গতকাল থেকে কিছু অস্বস্তি ছিল এবং আজকে খেলার জন্য প্রস্তুত ছিল না। যে কারণে আমি ফ্র্যাঙ্কিকে নামিয়েছি।'

Comments

The Daily Star  | English

Cow running amok in a shopping mall: It’s not a ‘moo’ point

Animals in Bangladesh are losing their homes because people are taking over their spaces.

2h ago