খেলা

সেভিয়ার কাছে হারায় ফিকে বার্সার ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন

সেভিয়ার গোলরক্ষক ইয়াসিন বোনোর প্রতিরোধে ফাটল ধরাতে পারলেন না লিওনেল মেসিরা।
sevilla barcelona
ছবি: টুইটার

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের উপভোগ্য ম্যাচে বল দখলে কিছুটা এগিয়ে থাকল বার্সেলোনা। গোলমুখে শট নেওয়াতেও তারা প্রাধান্য দেখাল। কিন্তু সেভিয়ার গোলরক্ষক ইয়াসিন বোনোর প্রতিরোধে ফাটল ধরাতে পারলেন না লিওনেল মেসিরা। তাদেরকে হারিয়ে কোপা দেল রের ফাইনালের টিকিট পাওয়ার পথে এগিয়ে গেল হুলেন লোপেতেগির শিষ্যরা।

বুধবার রাতে সেমিফাইনালের প্রথম লেগে সেভিয়া নিজেদের মাঠে বার্সাকে হারিয়েছে ২-০ গোলে। প্রথমার্ধে জুল কুন্দের গোলে এগিয়ে যায় তারা। ম্যাচের শেষদিকে রোনাল্ড কোমানের দলের শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে জায়গা করে নেওয়ার স্বপ্ন ফিকে করে দেন কাতালানদেরই সাবেক তারকা ইভান রাকিতিচ।

ত্রয়োদশ মিনিটে গোলবঞ্চিত হয় বার্সা। বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি ফরোয়ার্ড আঁতোয়ান গ্রিজমান সেভিয়ার রক্ষণভাগের ওপর দিয়ে বল বাড়ান। অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ছয় গজের বক্সের সামান্য বাইরে থেকে প্রথমবারেই বাঁ পায়ে কোণাকুণি শট নেন মেসি। অসাধারণ দৃঢ়তায় পা দিয়ে বল ঠেকিয়ে দেন বোনো।

messi sevilla
ছবি: টুইটার

সাত মিনিট পর গোলের সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। তবে সুসোর কাট-ব্যাকে ফাঁকায় থাকা কুন্দের শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে চলে যায়। পাঁচ মিনিট পর এই ফরাসি ডিফেন্ডার আর হতাশ করেননি। বার্সার রক্ষণভাগের দুর্বলতার সুযোগ দারুণভাবে কাজে লাগান তিনি। স্বদেশি স্যামুয়েল উমতিতিকে কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন।

বিরতির আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিল সেভিয়া। বার্সার রক্ষণভাগের এলোমেলো দশায় সার্জিও এসকুদেরো ডি-বক্সের প্রান্তে ফাঁকায় বল পেয়ে যান। কিছুটা সময় নিয়ে জোরালো শট নেন তিনি। তবে টের স্টেগেন শূন্যে ভেসে কর্নারের বিনিময়ে তা রক্ষা করেন।

দ্বিতীয়ার্ধের নবম মিনিটে ৩৩ বছর বয়সী মেসিকে আবারও হতাশ করেন বোনো। ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের সঙ্গে বল আদান-প্রদান করে ডি-বক্সের বাইরে থেকে নিচু শট নেন আর্জেন্টাইন তারকা। বোনো ডান দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে তা রুখে দেন। ৭১তম মিনিটে মেসির আরেকটি প্রচেষ্টা হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট।

rakitic
ছবি: টুইটার

৮৫তম মিনিটে সেভিয়ার জয় নিশ্চিত করেন ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার রাকিতিচ। পাল্টা আক্রমণে অলিভার তরেস নিজেদের অর্ধ থেকে উঁচু করে বল বাড়ান। তাতে বার্সার রক্ষণভাগ হয়ে যায় ছন্নছাড়া। এরপর বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অনেকটা দৌড়ে ডি-বক্সে ঢুকে জোরালো শটে জাল কাঁপান রাকিতিচ।

ম্যাচের যোগ করা সময়ে আরও একবার মেসিকে আক্ষেপে পোড়ান বোনো। ডি-বক্সের সামান্য বাইরে বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রি-কিক পেয়েছিল বার্সেলোনা। দূরের পোস্ট লক্ষ্য করে নিচু শট নিয়েছিলেন ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। কিন্তু বোনো ফের আবির্ভূত হন চীনের প্রাচীর হয়ে।

বার্সেলোনার ফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। আগামী ৪ মার্চ ন্যু ক্যাম্পে অনুষ্ঠিত হবে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগ। সেদিন বাঁচা-মরার লড়াইয়ে নামতে হবে মেসি-গ্রিজমানদের।

Comments