খেলা

বনার ফিরলেও বাংলাদেশকে দুশ্চিন্তায় রাখলেন জশুয়া-আলজারি

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশন শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩২৫ রান।
bangladesh cricket team
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

বাকি বোলাররা সাদামাটা থাকলেও উইকেট থেকে বেশ সুবিধা আদায় করে নিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তার কল্যাণে বিপজ্জনক এনক্রুমা বনারকে সেঞ্চুরি ছোঁয়ার আগে সাজঘরে পাঠাতে পারল বাংলাদেশ। কিন্তু জশুয়া ডা সিলভার সঙ্গে আলজারি জোসেফের জুটি জমে যাওয়ায় বড় সংগ্রহের পথে রইল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

শুক্রবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশন শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩২৫ রান। প্রথম সেশনের খেলা হলো ২৯ ওভার। চালিয়ে খেলে ক্যারিবিয়ানরা তুলল ১০২ রান। উইকেটে আছেন ডা সিলভা ১৩৬ বলে ৭০ ও আলজারি ৪৮ বলে ৩৪ রানে।

দিনের প্রথম ওভারেই রিভিউ হারায় বাংলাদেশ। আবু জায়েদ রাহির ফুল লেংথের ডেলিভারি জশুয়ার পায়ে লাগলেও রিপ্লেতে দেখা যায় তা স্টাম্প মিস করে যেত। পরের বলই পয়েন্ট দিয়ে সীমানাছাড়া করে এনক্রুমা বনারের সঙ্গে জুটির রান পঞ্চাশ পার করেন জশুয়া।

পেসার রাহির সঙ্গী হিসেবে বোলিং শুরু করেছিলেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তারা শুরুর প্রত্যাশা পূরণ করতে না পারায় আক্রমণে আনা হয় মিরাজকে। প্রথম ওভার থেকেই তীক্ষ্ণ টার্ন পেতে থাকেন এই অফ স্পিনার।

মিরাজের হাত ধরেই আসে এদিনে বাংলাদেশের প্রথম সাফল্য। পা বাড়িয়ে অন সাইডে ফ্লিক করতে চেয়েছিলেন আগের দিনের ৭৪ রান নিয়ে নামা বনার। কিন্তু ব্যাটের কানায় লেগে বল চলে যায় লেগ স্লিপে। সেখানে দারুণভাবে নিচু ক্যাচ লুফে নেন মোহাম্মদ মিঠুন। সেঞ্চুরির সুবাস জাগিয়ে বনার ফেরেন ২০৯ বলে ৯০ রানে। তার ইনিংসে ছিল ৭ চার। এই ডানহাতির বিদায়ে ভাঙে ক্যারিবিয়ানদের ৮৮ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটি।

প্রথম ঘণ্টায় খেলা হয় ১৪ ওভার। বনারের উইকেট খুইয়ে উইন্ডিজ তোলে ৫১ রান। পানি পানের বিরতির ঠিক আগের ওভারে ব্যক্তিগত মাইলফলক পূরণ করেন জশুয়া। রিভার্স সুইপে মিরাজকে চার মেরে ৮৬ বলে ফিফটিতে পৌঁছান তিনি।

বাংলাদেশের উল্লাস স্থায়ী হয়নি বেশিক্ষণ। জশুয়ার সঙ্গে জমে যায় আলজারির জুটি। আগ্রাসী ঢঙে ব্যাটিং করা এই পেসার মিরাজকে টানা ২ চার মারার পর লং অন দিয়ে ছক্কায়ও ওড়ান। ইনিংসের ১১১তম ওভারে ৩০০ ছাড়িয়ে যায় সফরকারীদের সংগ্রহ।

সেশনের শেষভাগেও আক্রমণাত্মক ব্যাটিং বজায় রাখেন আলজারি। দেখেশুনে এগোনো জশুয়াও বাজে বল পেলেই করেন মাঠছাড়া। ফলে প্রায় প্রতি ওভারেই বাউন্ডারি পেতে থাকে উইন্ডিজ। দুজনের অবিচ্ছিন্ন সপ্তম উইকেট জুটির রান ১০৫ বলে ৫৯। জশুয়ার ইনিংসে চার ৮টি। আলজারি ৫ চারের সঙ্গে মারেন ২ ছক্কা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশন শেষে)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস: (আগের দিন ২২৩/৫) ১১৯ ওভারে ৩২৫/৬ (বনার ৯০, জশুয়া ৭০*, আলজারি ৩৪*; রাহি ২/৭৫, মিরাজ ১/৬৮, নাঈম ০/৫৬, তাইজুল ২/৯০, সৌম্য ১/৩০)।

Comments

The Daily Star  | English

Economy with deep scars limps along

Business and industrial activities resumed yesterday amid a semblance of normalcy after a spasm of violence, internet outage and a curfew left deep wounds on almost all corners of the economy.

51m ago