মোটরসাইকেল নয়, গণপরিবহনে নজর দেওয়ার দাবি যাত্রী কল্যাণ সমিতির

সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসকল্পে পথচারীদের নিরাপত্তা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মোটরসাইকেল নিবন্ধন ফি কমানো ও সিসি বা অশ্বশক্তি ১৬৫ থেকে বৃদ্ধি করে ৩৫০ সিসিতে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে গণপরিবহনকে বিকশিত করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।
জেব্রা ক্রসিংয়ে পথচারী পারাপারের মধ্যেও থামছে না মোটরসাইকেল। ফলাফল হিসেবে বাড়ছে দুর্ঘটনা। স্টার ফাইল ফটো

সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসকল্পে পথচারীদের নিরাপত্তা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মোটরসাইকেল নিবন্ধন ফি কমানো ও সিসি বা অশ্বশক্তি ১৬৫ থেকে বৃদ্ধি করে ৩৫০ সিসিতে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে গণপরিবহনকে বিকশিত করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

আজ শনিবার সকালে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, পৃথিবীর সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ ছোট্ট এই দেশে রাস্তার পরিমাণ বিবেচনায় না নিয়ে প্রতিবছর প্রায় তিন থেকে চার লাখ মোটরসাইকেল রাস্তায় নামছে, বিপরীতে গণপরিবহন তথা বাসের সংখ্যা জ্যামিতিক হারে কমছে। গণপরিবহনের এই ভুলনীতি বন্ধ না হলে অচিরেই দেশের যেকোনো পথে যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়বে।

বর্তমানে দেশে নিবন্ধিত ৪৪ লাখ যানবাহনের বিপরীতে ৩১ লাখ মোটরসাইকেল রয়েছে। নিবন্ধনবিহীন আরও তিন থেকে চার লাখ মোটরসাইকেল রাস্তায় চলছে। অথচ মোটরসাইকেল চালকদের মাত্র ১৮ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স রয়েছে বলে বিবৃতিতে দাবি করা হয়।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির পরিসংখ্যান মতে, দেশে ২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় আক্রান্ত ৬৭৩৬টি যানবাহনের মধ্যে মোটরসাইকেলের সংখ্যা ছিল ১৬৭১টি। যা মোট আক্রান্ত যানবাহনের ২৪.৮ শতাংশ। ২০১৯ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় আক্রান্ত ৭৩৫৬টি যানবাহনের মধ্যে ১৫৬৩টি মোটরসাইকেল সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে। যা মোট আক্রান্ত যানবাহনের ২১.৪ শতাংশ। এতে দেখা গেছে, গত এক বছরে দেশে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার বেড়েছে ৩.৪ শতাংশ। দেশের একমাত্র এক্সপ্রেসওয়ে ঢাকা-মাওয়া-পাচ্চর জাতীয় মহাসড়ক ছাড়া অন্য কোনো মহাসড়কে ১০০ কিলোমিটার গতিতে নিশ্চিন্তে মোটরসাইকেল চালানোর সুযোগ নেই। রাজধানীসহ দেশের প্রধান প্রধান মহানগরীতে মোটরসাইকেলের জন্য আলাদা লেন না থাকায় ট্রাফিক আইন ভাঙার শীর্ষে রয়েছে মোটরসাইকেল।

পঙ্গু হাসপাতালের তথ্য মতে, প্রতিবছর গড়ে সাড়ে সাত থেকে আট হাজার পঙ্গু রোগী মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার শিকার হয়ে এই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। সড়ক দুর্ঘটনা ও যানজট কমাতে চীনের পাঁচটি মহানগরীসহ পৃথিবীর বহু দেশের প্রধান প্রধান মহানগরীতে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ করেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, দেশে মানসম্মত গণপরিবহনের অভাব, যাত্রী হয়রানী, ভাড়া নৈরাজ্য, যাত্রীসেবার মান, কর্মসংস্থানের অভাবসহ নানা কারণে মানুষ মোটরসাইকেলকে নিরাপদ বাহন ও কর্মসংস্থানের বিকল্প উপায় হিসেবে মনে করছে।

অনলাইনভিত্তিক প্লাটফর্মের মাধ্যমে মোটরসাইকেল ভাড়ায় ব্যবহারের কারণে দেশের কর্মহীন বিপুল সংখ্যক যুবগোষ্ঠী ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালিয়ে আয়ের পথ বেঁচে নিলেও কার্যত একটি আদর্শ রাষ্ট্রে গণপরিবহনকে বিকশিত করার কোনো বিকল্প নেই। তাই এই মুহূর্তে মোটরসাইকেল, ইজিবাইক, মোটরচালিত রিক্সাসহ ছোট ছোট যানবাহনের লাগাম টেনে ধরার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

Comments

The Daily Star  | English

Release of ship, crew: KSRM keeps mum on ransom

The hijacked Bangladeshi ship MV Abdullah and its 23 crewmen were freed as negotiation with the pirates adhering to international rules paid results, the ship-owning firm KSRM Group has informed.

1h ago