‘বিশ্বকাপ’ জেতার স্বপ্নে বুঁদ ইশান্ত

সাদা বলের ক্রিকেটে কোন সংস্করণেই খেলা হয় না ইশান্ত শর্মার। ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা তাই নেই তার।
ishant sharma
ছবি: আইসিসি টুইটার

সাদা বলের ক্রিকেটে কোন সংস্করণেই খেলা হয় না ইশান্ত শর্মার। ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা তাই নেই তার। তবে তিনি বিশ্বকাপই জিততে চান। কারণ তার কাছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালই যে বিশ্বকাপের সমান।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল এরমধ্যে নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। তাদের প্রতিপক্ষ হওয়ার লড়াইয়ে ভারত, ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। চলমান ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের বাকি দুই ম্যাচের ফলই মূলত ঠিক করবে ফাইনালের আরেক দল।

বুধবার আহমেদাবাদে দুদলের তৃতীয় টেস্টটা নানা দিক থেকেই গুরুত্বপূর্ণ। নিজেদের ইতিহাসে গোলাপি বলে দিবারাত্রির দ্বিতীয় টেস্টে নামবে ভারত। খেলা হবে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি দর্শক ধারণ ক্ষমতার বড় মাঠ আহমেদাবাদের মোতেরায়। যে জিতবে ফাইনালের দিকে এক পা পড়ে যাবে তার।

আর ইশান্তের জন্য ম্যাচটা দারুণ এক মাইলফলক স্পর্শ করার। দেশের মাত্র দ্বিতীয় পেসার হিসেবে শততম টেস্ট খেলতে নামছেন তিনি। সব মিলিয়ে ৯৯ টেস্টে ৩০২ উইকেট নেওয়া এই ডানহাতি পেসার চলমান চ্যাম্পিয়নশিপ নিয়ে ভাসছেন রোমাঞ্চে,  ‘আমি শুধুমাত্র একটা সংস্করণে খেলি। কাজেই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ আমার কাছে বিশ্বকাপের মতন। আমরা যদি ফাইনালে যাই এবং পরে  জিতি তাহলে বিশ্বকাপ জেতার মতই অনুভূতি হবে।’

শততম টেস্ট হয়ে যেত আরও আগেই। কিন্তু চোটের কারণে যেতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ায়। সেটা হলে টেস্টের সংখ্যা বেড়ে যেত,  ‘অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে শততম টেস্ট খেললে ভাল লাগত। কিন্তু কিছু জিনিস নিয়ন্ত্রণে ছিল না।’

ভারতীয় পেসারদের মধ্যে কেবলই কপিল দেবই খেলেছেন একশোর বেশি টেস্ট। ১৩১ টেস্ট খেলা এই কিংবদন্তীকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ আছে ৩২ বছর বয়েসী ইশান্তের। তবে লক্ষ্যটা এখনি অতদূর নিতে চান না তিনি,  ‘১৩১ টেস্ট পর্যন্ত যেতে অনেক সময় দরকার। আমার চিন্তা এখন পরের টেস্ট নিয়ে। জিততে পারলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল নিয়ে ভাবব। এভাবেই এগুচ্ছি।’

ইশান্তের সামনে উদাহরণ হিসেবে আছেন প্রতিপক্ষের জেমস অ্যান্ডারসন। ৩৮ পেরিয়েও এখনো সেরা ছন্দ ধরে রেখেছেন তিনি। এক্ষেত্রেও ইশান্ত ভাবনা রাখছেন রয়েসয়ে,  ‘এই অবস্থায় ৩৮ বছরের কথা বলা কঠিন। একটা একটা টেস্ট ধরে এগুচ্ছি। আমি নিজের শরীরকে বুঝি। এই বয়সে কোন ধরণের ট্রেনিং দরকার, সেটা জানি। এখন বুঝি শরীরকে রিকভারির সময় দিতে হয়।’

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

8h ago