রুটও যে উইকেটে ব্যাটসম্যানদের আতঙ্ক

ইংল্যান্ডের ১১২ রানের জবাবে ৩ উইকেটে ৯৯ রান নিয়ে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিল ভারত। সেখান থেকে আর মাত্র ৪৬ রান যোগ করতে পড়েছে তাদের বাকি ৭ উইকেট।

অনিয়মিত স্পিনার হিসেবে মাঝে মাঝে হাত ঘোরান জো রুট। তিনিই কিনা হয়ে উঠলেন ভয়ঙ্কর। বিশেষজ্ঞ স্পিনার জ্যাক লিচকে সঙ্গ দিতে এসেছিলেন। কিন্তু পরে লিচকে ছাপিয়ে তিনিই হয়ে গেলেন সবচেয়ে সফল। রুট-লিচের স্পিনে আচমকা ব্যাটিং ধসে দেড়শোর আগেই গুটিয়ে গেল ভারতের ইনিংস।

ইংল্যান্ডের ১১২ রানের জবাবে ৩ উইকেটে ৯৯ রান নিয়ে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিল ভারত। সেখান থেকে আর মাত্র ৪৬ রান যোগ করতে পড়েছে তাদের বাকি ৭ উইকেট। প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪৫ রানে অল্প রানে গুটিয়ে গেলেও ৩৩ রানের লিড হয়ে গেছে স্বাগতিকদের। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে কোন রান করার আগেই ২ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে ইংল্যান্ডও। 

আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামের বাইশ গজের যা অবস্থা, তাতে এই লিডকেও দেখাচ্ছে অনেক বড়। ভারতকে কাঁপিয়ে দিতে মাত্র ৮ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক রুট। এটাই টেস্ট ক্যারিয়ারে তার সেরা বোলিংয়ের নজির। এর আগে ৮৭ রানে ৪ উইকেট ছিল তার সেরা বোলিং ফিগার।

উইকেটে টার্ন, অসমান বাউন্স প্রথম দিনেই দেখা গিয়েছিল। প্রথম সেশন থেকেই ভারতীয় স্পিনে খাবি খেতে থাকেন রুটরা।

দ্বিতীয় দিন উইকেট হয়ে গেল যেন আরও দুরূহ। লেগ স্টাম্পের বাইরে পিচড করা বল অফ স্টাম্প থেকে বেরিয়ে যেতে যেতে লাফ দিচ্ছে আচমকা। অফ স্টাম্পের বাইরে বল চরকির মতো ঘুরে গিয়ে লাগছে প্যাডে বা আঘাত হানছে উইকেটে।

দিনের শুরুর কিছুটা সময় বাদ দিলে ভারতের ব্যাটসম্যানরা সারাক্ষণই ছিলেন আসা-যাওয়ার মধ্যে। প্রথম আধঘন্টা খেলে দেওয়ার পর লিচের শিকার হন আজিঙ্কা রাহানে। ফিফটি করে রোহিত শর্মা একাই টানছিলেন দলকে। ৬৬ করা রোহিতকেও ফিরিয়ে দেন লিচ।

লিচের এমন সাফল্য দেখে নিজেই বল করার সিদ্ধান্ত নেন রুট। প্রথম ওভারেই উইকেট পেয়ে যান তিনি। তার বলে কিপারের হাতে ধরা পড়েন রিশভ পান্ত। উইকেট-মেডেন নেওয়ার পরের ওভারও মেডেন নেন। নিজের তৃতীয় ওভারে ডাবল উইকেট-মেডেন তার। ওই ওভারে আউট করে দেন ওয়াশিংটন সুন্দর আর আক্সার প্যাটেলকে।

এক পর্যায়ে ইংল্যান্ড অধিনায়কের বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ৩-৩-০-৩! রীতিমতো অবিশ্বাস্য।

চরম বিপর্যস্ত পরিস্থিতি থেকে প্রতিরোধের চেষ্টা চালিয়েছিলেন রবীচন্দ্রন অশ্বিন। তার ব্যাট থেকে আসে গুরুত্বপূর্ণ ১৭ রান। রুটই ফেরান তাকে। জাসপ্রিত বুমরাহকে আউট করে তিনি শিকার করেন পঞ্চম উইকেট।

Comments