নিউজিল্যান্ডে রান আটকানোর বোলিং করতে চান মিরাজ

মঙ্গলবার কুইন্সটাউনে দুই দলে ভাগ হয়ে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে তাতে পরখ করে নিয়েছেন নিজেদের অবস্থা।
Md Mithun faces Rubel Hossain
ছবি: বিসিবি

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে স্পিনারদের জন্য কাজটা বেশ কঠিন। উইকেট থেকে ঘূর্ণি বলে বাড়তি সহায়তা না থাকায় ভাল করতে হলে বোলিংয়ে থাকা চাই বৈচিত্র্য। মেহেদী হাসান মিরাজের ভাবনা ঘুরছে সেদিকেই। উইকেট নেওয়ার চেয়ে বরং রান আটকে রাখার কাজটা করতে পারলেই তৃপ্ত থাকবেন তিনি।

মঙ্গলবার কুইন্সটাউনে দুই দলে ভাগ হয়ে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে তাতে পরখ করে নিয়েছেন নিজেদের অবস্থা।

ম্যাচ শেষে পাঠানো ভিডিও বার্তায় মিরাজ জানান, কন্ডিশন প্রতিকূল হলেও স্পিন দিয়ে রাখতে চান কার্যকর ভূমিকা,  ‘এখানে বৈচিত্র্যটা খুব গুরুত্বপূর্ণ, যেটা আমাকে ড্যানিয়েলও (ভেট্টোরি) বলেছে। এখানে হয়ত ১-২ বল পরপর বৈচিত্র্য খুব গুরুত্বপূর্ণ, আস্তে-জোরে মিশিয়ে করে এবং লাইন লেংথটা গুরুত্বপূর্ণ। আমি মনে করি ফিল্ডিং সেটআপ নিয়ে যদি লাইন লেংথ এবং বৈচিত্র্য অনুযায়ী বল করা যায়, হয়ত উইকেট বের করতে না পারলেও রানটা আটকানো যাবে। আমি এটাই চেষ্টা করেছি রান আটকানোর।’

 এই ম্যাচে অবশ্য বোলিংয়ে নয়। ব্যাট হাতে ঝলক দেখান মিরাজ। নাজমুল একাদশের হয়ে রান তাড়ায় ফিফটি করে স্বেচ্ছায় অবসরে যান তিনি।

মিরাজ ছাড়া দুই দল মিলিয়ে এদিন ফিফটি পেয়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস আর মুশফিকুর রহিমও।  কুইন্সল্যান্ডের জন ডেভিস ওভাল মাঠে তামিম একাদশ ও নাজমুল একাদশ নামে দুই দলে ভাগ হয়ে ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ দল। তাতে ৯ উইকেটে জিতেছে নাজমুল একাদশ।

তামিম একাদশে অবশ্য খেলেননি অধিনায়ক তামিম ইকবাল। উরুতে কিছুটা অস্বস্তি থাকায় এদিন ওয়ানডে অধিনায়ক ছিলেন বিশ্রামে।

আগে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ২৩৩ রান করে তামিম একাদশ। তাতে  সর্বোচ্চ ৬০ রানে অপরাজিত ছিলেন মিঠুন। এই একাদশের হয়ে খেলা নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় ক্রিকেটার বেঞ্জি কুহান করেন ৪৬ রান।  তাদের থামিয়ে ৪২ রানে  উইকেট পান রুবেল হোসেন।

সকালে বোলারদের জন্য কিছুটা অনুকূল কন্ডিশনে ওপেন করতে নেমে ১২ রান করে ফেরেন নাঈম শেখ। আরেক ওপেনার থিতু হয়েছিলেন সৌম্য সরকার। কিন্তু ২৮ রান করে আউট হন তিনি। মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান।

জবাবে ১৯ বল আগেই খেলা জিতে যায় নাজমুল একাদশ। তারা কেবল ১ উইকেটই হারিয়েছিল। কিন্তু তিনজন ব্যাটসম্যান স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে খেলার সুযোগ দেন অন্যদের।

অধিনায়ক শান্ত ৪০ রান করে অবসরে যান। ওপেনার লিটন ৫৯ করে স্বেচ্ছায় বেরিয়ে যান। মুশফিক ৫৪ রান করে ছিলেন অপরাজিত। মিরাজের ব্যাট থেকেও আসে ফিফটি। এরপরই তিনিও স্বেচ্ছায় বের হয়ে আসেন।

অনুশীলন ম্যাচ নিয়ে সন্তুষ্টির কথাও বলেন মিরাজ, ‘আমাদের দলের বোলাররা খুব ভালো জায়গায় বল করেছে। রুবেল ভাই চার উইকেট পেয়েছে, খুব ভালো লাইন এবং লেংথে বল করেছে। এবং সাইফুদ্দিন এবং শরিফুল সবাই খুব ভালো জায়গায় বল করেছে। এবং স্পিনাররা, আমি যতটুকু চেষ্টা করেছি লাইন লেংথটা ভালো জায়গায় বল করার জন্য।’

খুব বড় রান না হলেও কয়েকজন ব্যাটসম্যান রান পাওয়ায় ব্যাটসম্যানদের দিক থেকেও ম্যাচটাতে প্রাপ্তি দেখছেন তিনি, ‘ব্যাটসম্যানরা খুব আত্মবিশ্বাস নিয়ে ব্যাট করছে। আমি মনে করি এই প্র্যাকটিস ম্যাচটা আমাদের খুব আত্মবিশ্বাস দিবে।’

প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়েই কুইন্সটাউনে প্রস্তুতি ক্যাম্প শেষ করেছে বাংলাদেশ দল। এরপর ২০ মার্চ প্রথম ওয়ানডের ভেন্যু ডানেডিনে যাবেন ক্রিকেটাররা।

Comments

The Daily Star  | English
US sanctions ex-army chief Aziz, family members

US sanctions ex-army chief Aziz, family members

The United States has imposed sanctions on former chief of Bangladesh Army Aziz Ahmed and his immediate family members due to his involvement in significant corruption

2h ago