খেলা

ক্রাইস্টচার্চের উইকেটের ধরণে কারণে আশাবাদী বাংলাদেশ

ম্যাচের আগের দিন সোমবার অনুশীলন সেরে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মিঠুন দিলেন এক তথ্য। যার উপর ভর করে আশার পালে হাওয়া দিচ্ছেন তারা

স্যুইংয়ের সঙ্গে বাড়তি বাউন্স। নিউজিল্যান্ডে গিয়ে এতেই কাবু হয়ে গেছে বাংলাদেশ। ডানেডিনে প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাটসম্যানরা ভুগেছেন বিস্তর। ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডের উইকেটের ধরণে আছে কিছুটা ভিন্নতা। বাউন্সটা কম থাকায় তাই এখানে বাংলাদেশের আশাও বড়। এমনটাই জানালেন মোহাম্মদ মিঠুন।

মাত্র ১৩১ রানে গুটিয়ে প্রথম ম্যাচে হারতে হয়েছে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে। একপেশে সেই ম্যাচ বাংলাদেশ দলকে করেছে প্রশ্নবিদ্ধ। ঘুরে দাঁড়াতে হলে চাই রান।

ম্যাচের আগের দিন সোমবার অনুশীলন সেরে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মিঠুন দিলেন এক তথ্য। যার উপর ভর করে আশার পালে হাওয়া দিচ্ছেন তারা, ‘সাধারণত আমরা যেটা জানি, ক্রাইস্টাচার্চের উইকেটে অন্যান্য উইকেটের তুলনায় বাউন্সটা তুলনামূলক কম থাকে তবে গতি থাকে। গতি বেশি থাকলে ব্যাটসম্যানদের জন্য একটা সুবিধা যে বল ভালো ব্যাটে আসে। আমরা যদি নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি এবং ইতিবাচক থাকি তাহলে ডানেডিনের পুনরাবৃত্তি হবে না।’

ভালো করতে হলে সহজ কাজ একটাই-রান করা। সেই সহজ কাজটাই খেলার ধরনে কঠিন করে তুলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। তবে এবার আগের ভুল সব ঝেড়ে নতুন শুরুর অপেক্ষায় মিঠুনরা,  ‘দেখুন যে ধরণের উইকেটে ভালো করতে হলে অবশ্যই ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে। গত ম্যাচে খুবই বাজে ছিল, যদিও কন্ডিশন আমাদের পক্ষে ছিল না। এর আগেও বলা হয়েছে যে আমরা এতো খারাপ দল না। ক্রাইস্টচার্চ নতুন ভেন্যু, নতুন আরেকটা ম্যাচ। অবশ্যই চাইব, আগের ম্যাচের সবকিছু ভুলে গিয়ে সামনের ম্যাচে সেরাটা দেওয়ার।’

বোলারদের জন্য লড়াইয়ের পরিস্থিতি আনতে একটা নূন্যতম লক্ষ্যও ঠিক করেছেন তারা, ‘ব্যাটসম্যানদের আরেকটু দায়িত্বশীল হতে হবে। উপর থেকে নিচ পর্যন্ত- সবার জায়গা থেকে সেরাটা দিতে হবে। সবসময় একটা জিনিস নিয়ে কথা হয়, এখানে প্রথম ১০ ওভারেই ম্যাচ আমাদের হাত থেকে বের হয়ে যায় বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে। নিউজিল্যান্ডের উইকেটে সাধারণত হাই-স্কোরিং ম্যাচ হয়। অবশ্যই আমাদের ২৬০-২৭০ না করলে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করাটা কঠিন। উইকেট যেমনই হোক, সেটির সঙ্গে আমাদের খাপ খাইয়ে নিতে হবে। অন্তত আমাদের ম্যাচ জেতার জন্য যতটুকু করা দরকার এবং বোলাররা যাতে একটু নির্ভার থাকতে পারে অন্তত এমন একটা লক্ষ্য দেওয়ার।’

‘আমি মনে করি অন্যবারের চেয়ে এবারের বোলিং অ্যাটাক যথেষ্ট ভালো। আমরা সবাই ওদের উপর ভরসা করতে পারি। ব্যাটসম্যানরা যদি একটা বড় টোটাল দাঁড় করাতে পারি তাহলে ওরা কতটুকু ক্যাপাবল সেটি প্রমাণ করতে পারবে।’

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায় দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নামবে তামিম ইকবালের দল। সিরিজে আশা টিকিয়ে রাখতে এই ম্যাচে জেতার কোন বিকল্প নেই।

Comments