উ. কোরিয়ার নতুন সাবমেরিন, ক্ষেপণাস্ত্র: উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র, দ. কোরিয়া

যুক্তরাষ্ট্রকে সঙ্গে নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া বৈরী প্রতিবেশী উত্তর কোরিয়ার নতুন সাবমেরিন ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।
উত্তর কোরিয়ার সাবমেরিন থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা। ছবি: এএফপি ফাইল ফটো

যুক্তরাষ্ট্রকে সঙ্গে নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া বৈরী প্রতিবেশী উত্তর কোরিয়ার নতুন সাবমেরিন ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

আজ সোমবার যুক্তরাষ্ট্র ও কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের বরাত দিয়ে কোরিয়ান হেরাল্ড এ তথ্য জানিয়েছে।

সাবমেরিন থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার কর্মসূচিগুলো উত্তর কোরিয়ার প্রধান শিপইয়ার্ডে সম্পাদন করা হয়ে থাকে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বাণিজ্যিক স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা গেছে উত্তর কোরিয়ার সিনপো শিপইয়ার্ডের সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার মিসাইল ক্যানিস্টার সম্ভবত সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

এমনও হতে পারে তা মেরামতের জন্যে সরানো হয়েছে বা সেখানে একটি নতুন ক্যানিস্টার বসানো হবে অথবা আরও বড় পরিসরে সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার কর্মসূচি নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের মুখপাত্র কর্নেল কিম জুন-রাক নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘আমাদের সেনাবাহিনী উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীর কর্মকাণ্ড গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। এ ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো আমাদের ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করছে।’

‘সব সম্ভাবনার কথা মাথায় নিয়ে আমরা নিজেদের প্রস্তুত করছি’, যোগ করেন তিনি।

উত্তর কোরিয়া নতুন তিন হাজার টন ওজনের সাবমেরিনটির যাত্রা শুরু করতে যাওয়ার কোনো ইঙ্গিত পাওয়া গেছে কি না, সে সম্পর্কে জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিষয়গুলো গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে এবং সব সম্ভাবনাকে সামনে রাখছে।’

এর আগে সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, উত্তর কোরিয়া একটি নতুন সাবমেরিন তৈরি করেছে। সেই সাবমেরিন থেকে তিনটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া সম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়া এই কর্মসূচির কথা ২০১৯ সালের জুলাইয়ে প্রথম জানিয়েছিল।

চলতি বছরের শুরুতে উত্তর কোরিয়া এক সামরিক কুচকাওয়াজে সাবমেরিন থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার নতুন সক্ষমতার কথা প্রকাশ করে।

আরও পড়ুন:

সংকটে উ. কোরিয়া, দুর্ভিক্ষ মোকাবিলার প্রস্তুতির আহ্বান কিমের

উত্তর কোরিয়ার নতুন ধরনের শক্তিশালী মিসাইল প্রদর্শন

যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে বড় শত্রু, পরমাণু অস্ত্র ও সামরিক শক্তি বাড়াবে উ. কোরিয়া: কিম

উত্তর কোরিয়ার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র, ইরানের শক্তি ও ইসরায়েলের আতঙ্ক

Comments

The Daily Star  | English
 foreign serial

Iran-Israel tensions: Dhaka wants peace in Middle East

Saying that Bangladesh does not want war in the Middle East, Foreign Minister Hasan Mahmud urged the international community to help de-escalate tensions between Iran and Israel

3h ago