খেলা

এর চেয়ে বেশি কিছু করতে পারতাম না: রেকর্ডের পর স্যামসন

স্যামসনের কল্যাণে বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় জয়ের সুবাস জাগিয়েছিল রাজস্থান।
samson
ছবি: টুইটার

আর মাত্র কয়েক গজ! তাহলেই সাঞ্জু স্যামসনের শটটা আছড়ে পড়ত সীমানার বাইরে। হয়ে যেত ছয়। রাজস্থান রয়্যালস ভাসত আনন্দের জোয়ারে। কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি। ডিপ কভারে ধরা পড়েন স্যামসন। অসাধারণ সেঞ্চুরিতে রেকর্ড গড়েও তাই আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। পরে রাজস্থানের অধিনায়ক বলেছেন, উইকেটে সামর্থ্যের সর্বোচ্চটাই দিয়েছিলেন তিনি।

আইপিএলে সোমবার রাতে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ৪ রানের রোমাঞ্চকর জয় পায় পাঞ্জাব কিংস। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ২২১ রান তোলে তারা। জবাবে স্যামসনের বিস্ফোরক ইনিংস সত্ত্বেও ৭ উইকেটে ২১৭ রানে থামে রাজস্থান।

স্যামসনের কল্যাণে বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় জয়ের সুবাস জাগিয়েছিল রাজস্থান। চলমান আইপিএলে প্রথম সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তিনি আউট হন ৬৩ বলে ১১৯ রান করে। তার চোখ ধাঁধানো ইনিংসে ছিল ১২ চার ও ৭ ছক্কা। আইপিএলে নেতৃত্বের অভিষেকে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে সেঞ্চুরির করার রেকর্ড গড়েন ডানহাতি স্যামসন। বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসরে তার সেঞ্চুরি এখন তিনটি।

শেষ ওভারে জিততে রাজস্থানের দরকার ছিল ১৩ রান। শেষ ২ বলে সেটা কমে দাঁড়ায় ৫ রানে। পাঞ্জাবের বাঁহাতি পেসার আর্শ্বদীপ সিংয়ের পঞ্চম বলে রান নেওয়ার সুযোগ উপেক্ষা করে স্ট্রাইক ধরে রাখেন স্যামসন। যদিও শেষ বলে সমীকরণ মেলাতে পারেননি তিনি। অফ স্টাম্পের বাইরে হাফ ভলি ডেলিভারিটি ছক্কার উদ্দেশ্যেই সজোরে মেরেছিলেন স্যামসন। কিন্তু দীপক হুডা সীমানার একটু ভেতর থেকে হাতে জমান ক্যাচ।

হতাশা না ঢেকে ম্যাচ পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে স্যামসন বলেছেন, ‘আমার বলার কোনো ভাষা নেই। খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ হয়েছে। খুব কাছে পৌঁছে গিয়েছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে (হারতে হয়েছে)। আমার মনে হয় না, এর চেয়ে আর বেশি কিছু আমি করতে পারতাম। আমি খুব ভালোভাবে টাইমিং করেছিলাম। কিন্তু ডিপে থাকা খেলোয়াড়কে অতিক্রম করতে পারিনি। এটা এই খেলারই অংশ।’

প্রথম ২২ বলে ২৯ রান করা স্যামসন পরের ৪১ বলে তোলেন ৯০ রান! নিজের ব্যাটিং নিয়ে তার মূল্যায়ন, ‘আমার ইনিংসের দ্বিতীয় অংশটি সম্ভবত আমার খেলা সেরা। প্রথম অংশে আমার টাইমিং ভালো হচ্ছিল না। আমি সময় নিয়েছি, বোলারদের সম্মান করেছি, সিঙ্গেল নিয়েছি, ছন্দে গিয়েছি এবং তারপরে দ্বিতীয় অংশে শট খেলেছি।’

Comments

The Daily Star  | English