ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা আখতার হোসেন গ্রেপ্তার

ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন গ্রেপ্তার হয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা জানা যায়নি।
Akhter Hossain.jpg
ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা আখতার হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন গ্রেপ্তার হয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা জানা যায়নি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সামনে থেকে তাকে একটি গাড়িতে করে তুলে নেওয়া হয় বলে দ্য ডেইলি স্টারকে জানান ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসাইন।

তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পাসের গরিব অসহায় দোকানদারদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ শেষে আখতার হোসেনকে তুলে নেওয়া হয়। তিনি এখন ডিবি কার্যালয়ে আছেন বলে জানতে পেরেছি। আখতার হোসেন গত কয়েকদিন ধরে টাইফয়েডে ভুগছেন। আমাদের সংগঠনের নেতা-কর্মীরা ডিবি কার্যালয়ের সামনে তার জন্য ওষুধ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন।’

এ বিষয়ে জানতে শাহবাগ থানায় যোগাযোগ করা হলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন অর রশীদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘তাকে (আখতার) গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে শাহবাগ থানায় তার নামে যে মামলা রয়েছে, সে মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়নি। অন্য কোনো মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছে।’

আখতার হোসেনকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আখতার হোসেন মাত্র কয়েকদিন আগে টাইফয়েড থেকে সেরে উঠেছে। গত ৬ মাসে ১০ কেজি ওজন কমেছে। অসুস্থ থাকায় দীর্ঘদিন ধরে সাংগঠনিক কাজেও ওইভাবে সক্রিয় ছিল না। বাসায় বিশ্রামে ছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার ভাসমান দোকানদারের জন্য ছাত্র অধিকার পরিষদের পক্ষ থেকে আগামীকাল রমজান উপলক্ষে কিছু খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। বাড়ি যাওয়ার আগে সে একটু প্রাণের ক্যাম্পাসে এসেছিল। বাসায় ফেরার পথে সন্ধ্যার দিকে শহীদ মিনার এলাকা থেকে দীর্ঘ ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত হওয়া ডাকসুর নির্বাচিত সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনকে পুলিশ তুলে নিয়ে যায়।’

শাহবাগ থানার ওসি গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানালেও ডিবির কাছ থেকে এ বিষয়ে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Comments