মির্জা আব্বাস তার গতকালের বক্তব্যের দায় চাপালেন সাংবাদিকদের উপর

ইলিয়াস আলীকে গুম করার সঙ্গে বিএনপির কিছু নেতার সংশ্লিষ্ট থাকার ইঙ্গিত নিয়ে গতকাল বিভিন্ন গণমাধ্যমে মির্জা আব্বাসকে উদ্ধৃত করে যে খবর প্রকাশ হয়েছে তিনি আজ তার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, তার বক্তব্য বিকৃত করে গণমাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে।
ঢাকার শাহজাহানপুরে মির্জা আব্বাস তার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। ছবি: সংগৃহীত

ইলিয়াস আলীকে গুম করার সঙ্গে বিএনপির কিছু নেতার সংশ্লিষ্ট থাকার ইঙ্গিত নিয়ে গতকাল বিভিন্ন গণমাধ্যমে মির্জা আব্বাসকে উদ্ধৃত করে যে খবর প্রকাশ হয়েছে তিনি আজ তার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, তার বক্তব্য বিকৃত করে গণমাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে।

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস আজ সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, ‘একটি পত্রিকায় ছাপা হয়েছে- ইলিয়াস আলী গুমের জন্য বিএনপির কিছু নেতা দায়ী। এই কথা কী আমি বলেছি? কেউ কী প্রমাণ করতে পারবে? অসম্ভব, সম্ভব নয়। আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই—আমরা কথা বিকৃত করা হয়েছে।’

ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার নয় বছর পর এ ঘটনার বিষয়ে সিলেট বিভাগ জাতীয়তাবাদী সংহতি সম্মিলনীর উদ্যোগে শনিবার এক আলোচনা সভায় মির্জা আব্বাসের বক্তব্যের বরাতে প্রায় সব গণমাধ্যমেই যে খবর প্রকাশিত হয় তাতে ‘গুমের’ পেছনে নিজ দলের কিছু নেতার সংশ্লিষ্টতার কথা উল্লেখ করা হয়েছিল।

এই খবরের প্রতিবাদে মির্জা আব্বাস ঢাকার শাহজাহানপুরে তার বাসায় সংবাদ সম্মেলন ডেকে বলেন, ‘পত্রিকায় এসেছে— সরকার বা আওয়ামী লীগ ইলিয়াসকে গুম করে নাই—এই কথা আমি বলিনি। বিএনপির নেতারাই ইলিয়াস আলীকে গুম করেছে—বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হয়ে আমার পক্ষে এই কথাটা বলা সম্ভব?’

সাংবাদিকদের একহাত নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার বক্তব্যকে বিকৃত করে পেঁচিয়ে লেখা হয়েছে, টুইস্ট করা হয়েছে।’

‘আজকে সকালে ইলিয়াস আলীর বাসা গেছে একদল সাংবাদিক। তার স্ত্রীকে গিয়ে রীতিমতো চার্জ করেছে, বিভিন্ন প্রশ্ন করে হেনস্তা করার চেষ্টা করা হয়েছে। এটাই বা কেন? কী এমন ঘটনা ঘটল যে, হঠাৎ করে এই বিষয়টা নিয়ে এত মাথা ঘামাতে হবে?’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘গত ৯টি বছর ইলিয়াস গুম হওয়ার পর কোনো পত্র-পত্রিকা দিবসটি পালন করেনি। সেই ইলিয়াস আলীর জন্য আজকে কেন সাংবাদিকদের মাথা খারাপ হয়ে গেল? আমি কোনো সাংবাদিককে দোষারোপ করছি না।’

তবে গতকালের আলোচনা সভায় নিজের বক্তব্য বোঝাতে ব্যর্থতার জন্য তিনি নিজেও দুঃখ প্রকাশ করেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আমি আবারো বলছি যে, আমার গতকালের বক্তব্যের সামনের অংশ, পিছনের অংশ বাদ দিয়ে মাঝখান থেকে যার যেখানে যতটুকু প্রয়োজন নিয়ে মনের মাধুরী দিয়ে লিখেছেন। এর সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। এর সঙ্গে আমার দল এবং আমি কোনো দায়-দায়িত্ব বহন করি না। যারা বলছেন, যারা লিখেছেন তার জন্য তারাই দায়িত্ব বহন করবেন।’

সরকার ইলিয়াসকে গুম করেনি—এই বক্তব্য সম্পর্কে জানতে চাইলে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আমি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হয়ে কেনে বলব যে, আমি জানি সরকার জড়িত নয়। আমি কটাক্ষ করে বলেছি। এর অর্থ সরকারই বলুক ইলিয়াস আলী কোথায় আছে? সরকারকেই জবাব দিতে হবে। এই সরকারের সময়ে একজন জলজ্যান্ত ইলিয়াস, একজন তরতাজা ইলিয়াস, সত্যভাষী একজন ইলিয়াস গুম হয়ে যাবে? সরকার জানে না। তাহলে কে গুম করল? আমি এটা বলতে চেয়েছি।’

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা আব্বাসের সঙ্গে বিএনপির নেতা আসাদুজ্জামান রিপন, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, কামরুজ্জামান রতন, আবদুস সালাম আজাদ ও কাইয়ুম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:

৯ বছর পর মির্জা আব্বাস দিলেন ইলিয়াস আলীর ‘গুম তথ্য’

Comments

The Daily Star  | English

Peacekeepers can face non-deployment for rights abuse: UN

The UN peacekeepers can face non-deployment and even repatriation if the allegations of human rights against them are substantiated

36m ago