ভারত
করোনাভাইরাস

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু ৩৬৪৫ শনাক্ত ৩ লাখ ৭৯ হাজার ২৫৭

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও তিন হাজার ৬৪৫ জন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। করোনায় এ পর্যন্ত ভারতে মারা গেছেন দুই লাখ চার হাজার ৮৩২ জন।
আহমেদাবাদে হাসপাতালের বাইরে এক করোনা রোগী। ছবি: রয়টার্স ফাইল ফটো

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও তিন হাজার ৬৪৫ জন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। করোনায় এ পর্যন্ত ভারতে মারা গেছেন দুই লাখ চার হাজার ৮৩২ জন।

একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও তিন লাখ ৮৪ হাজার ৮১৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে ও বিশ্বে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত।

ভারতে মোট শনাক্ত হয়েছেন এক কোটি ৮৩ লাখ ৭৬ হাজার ৫২৪ জন। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও দুই লাখ ৬৯ হাজার ৫০৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ৫০ লাখ ৮৬ হাজার ৮৭৮ জন।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি মহারাষ্ট্রে। এরপর রয়েছে কেরালা, কর্ণাটক, উত্তর প্রদেশ, তামিলনাড়ু, দিল্লি, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, ছত্তিশগড় ও রাজস্থান।

গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে শনাক্ত হয়েছেন ৬৩ হাজার ৩০৯ জন।

ভারতে মোট শনাক্ত এক কোটি ৮৩ লাখ ৭৬ হাজার ৫২৪ জনের মধ্যে বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন ৩০ লাখ ৮৪ হাজার ৮১৪ জন।

গত ১৫ এপ্রিল থেকেই দেশটিতে দৈনিক দুই লাখের বেশি রোগী শনাক্ত হচ্ছে। এর মধ্যে আজ টানা অষ্টম দিনের মতো দৈনিক শনাক্তের সংখ্যা তিন লাখেরও বেশি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, অতীতের রেকর্ড ভেঙে গতকাল দেশটিতে তিন লাখ ৬০ হাজার ৯৬০ জনের করোনা শনাক্ত ও তিন হাজার ২৯৩ জনের মৃত্যু হয়। আজ সেই রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড হলো।

ভারতে এখন পর্যন্ত ১৫ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আরটি-পিসিআর ও অ্যান্টিজেন পদ্ধতিতে ১৭ লাখ ৬৮ হাজার ১৯০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত পরীক্ষা করা হয়েছে ২৮ কোটি ৪৪ লাখ ৭১ হাজার ৯৭৯টি নমুনা।

পরিসংখ্যান নিয়ে কাজ করা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, ভারতের মোট জনসংখ্যা ১৩৯ কোটির বেশি। সেখানে প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে গড়ে দুই লাখ চার হাজার ৪৮৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। আর বাংলাদেশে জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৬০ লাখের বেশি। এখানে প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে গড়ে ৩২ হাজার ৬৬৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩০ জানুয়ারি ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, সংক্রমণের দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে। ভারতের আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও পরে ব্রাজিল।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ কোটি ৯২ লাখ ৪২ হাজার ১৮৭ জন এবং মারা গেছেন ৩১ লাখ ৪৭ হাজার ১৬ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন আট কোটি ৬৫ লাখ ৭৩ হাজার ৬৭০ জন।

আরও পড়ুন:

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ৩২৯৩ শনাক্ত ৩ লাখ ৬০ হাজার ৯৬০

ভারতে আজও রেকর্ড শনাক্ত ৩ লাখ ৫২ হাজার ৯৯১ মৃত্যু ২৮১২

ভারতে মৃত্যু-শনাক্তের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড

আজও ভারতে মৃত্যু-শনাক্তের নতুন রেকর্ড

ভারতে আজও রেকর্ড: একদিনে মৃত্যু ২১০৪, শনাক্ত ৩ লাখের বেশি

ভারতে নতুন রেকর্ড: একদিনে মৃত্যু ২০২৩, শনাক্ত প্রায় ৩ লাখ

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু ১৭৬১, শনাক্ত ২ লাখ ৫৯ হাজার ১৭০

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড শনাক্ত ও মৃত্যু

একদিনে শনাক্তে ভারতের বিশ্ব রেকর্ড

ভারতে একদিনে রেকর্ড শনাক্ত ২ লাখ ৩৪ হাজার ৬৯২, মৃত্যু ১৩৪১

ভারতে প্রতিদিন ভাঙছে শনাক্তের রেকর্ড: আজ ২ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৩, মৃত্যু ১১৮৫

ভারতে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ২ লাখ ৭৩৯, মৃত্যু ১০৩৮

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড শনাক্ত ১ লাখ ৮৪ হাজার ৩৭২, মৃত্যু ১০২৭

ভারতে আজ শনাক্ত ১ লাখ ৬১ হাজার ৭৩৬, মৃত্যু ৮৭৯

Comments

The Daily Star  | English
Effects of global warming on Dhaka's temperature rise

Dhaka getting hotter

Dhaka is now one of the fastest-warming cities in the world, as it has seen a staggering 97 percent rise in the number of days with temperature above 35 degrees Celsius over the last three decades.

10h ago