প্রবাসে

ভারতের পাশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন

করোনাভাইরাসের ভয়াল রূপ দেখছে দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ জনগোষ্টির দেশ ভারত। প্রতিদিনই সেখানে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অক্সিজেনের সংকট ইতোমধ্যে প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে। রোগীদের সেবা দিতে স্বাস্থ্য অবকাঠামো বিপর্যস্ত। ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭৯ হাজার ২৫৭ জন এবং প্রাণ হারিয়েছেন ৩ হাজার ৬৪৫ জন।
ইউরোপীয় কমিশন প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন। রয়টার্স ফাইল ফটো

করোনাভাইরাসের ভয়াল রূপ দেখছে দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ জনগোষ্টির দেশ ভারত। প্রতিদিনই সেখানে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অক্সিজেনের সংকট ইতোমধ্যে প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে। রোগীদের সেবা দিতে স্বাস্থ্য অবকাঠামো বিপর্যস্ত। ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭৯ হাজার ২৫৭ জন এবং প্রাণ হারিয়েছেন ৩ হাজার ৬৪৫ জন।

এ অবস্থায় ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বিশ্বের অন্যতম অর্থনৈতিক জোট ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তারা ইতোমধ্যে সদস্য রাষ্ট্র নিয়ে টিম গঠন করেছে। কোভিড সংকট মোকাবিলায় ভারতের কাছে অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, অক্সিজেন জেনারেটর, রেমডেসিভির ও ভেন্টিলেটর পাঠাবে।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন কমিশনের সভাপতি উরসুলা ভন ডের লেইন এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘ইইউ ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে। সিভিল প্রোটেকশন মেকানিজমের আওতায় জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন, ওষুধ এবং সরঞ্জামের প্রথম চালানটি ভারতে পৌঁছে দেওয়া হবে।’

ব্রাসেলসে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত সন্তোষ ঝা এই সাহায্যের জন্য ইইউ নেতৃত্ব এবং সদস্য দেশগুলিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সহযোগিতা এবং সংহতি বরাবরই ভারত-ইইউ কৌশলগত অংশীদারিত্বের বৈশিষ্ট্য হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে আয়ারল্যান্ড ৭০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, ১টি অক্সিজেন জেনারেটর, ৩৬৫টি ভেন্টিলেটর পাঠাবে। এছাড়াও, বেলজিয়াম অ্যান্টিভাইরাল ওষুধের রেমডেসিভির ৯ হাজার ডোজ এবং রোমানিয়া ৮০টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর এবং ৭৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার পাঠাবে। এছাড়াও, লুক্সেমবার্গ ৫৮টি ভেন্টিলেটর এবং পর্তুগাল প্রতি সপ্তাহে ৫৫০৩টি রেমডেসিভির শিশি এবং ২০ হাজার লিটার অক্সিজেন এবং সুইডেন ১২০টি ভেন্টিলেটর পাঠাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ইইউ ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্টের কমিশনার জেনেজ লেনারসি বলেছেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভারতীয় জনগণের সাথে সম্পূর্ণ সংহতি প্রকাশ করেছে এবং এই সংকটময় সময়ে তাদের সাহায্য করার জন্য আমরা সর্বদা প্রস্তুত রয়েছি। আমি আমাদের সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে ধন্যবাদ দিতে চাই এইজন্য যে, তারা সংকটের সময়ে সাহায্যর হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। আমরা আবারো প্রমাণ করলাম যে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন হলো বিশ্বস্ত অংশীদার এবং প্রয়োজনের সময় বিশ্বস্ত বন্ধু"।

লেখক: লিসবন, পর্তুগাল প্রবাসী

Comments

The Daily Star  | English
Road crash deaths during Eid rush 21.1% lower than last year

Road Safety: Maladies every step of the way

The entire road transport sector has long been plagued by multifaceted problems, which are worsening every day amid sheer apathy from the authorities responsible for ensuring road safety.

7h ago