অভিযুক্ত গ্রেপ্তার না হওয়ায় হতাশ কলেজশিক্ষার্থীর পরিবার

‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’ মামলার অভিযুক্ত বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরকে এখনো গ্রেপ্তার না করায় হতাশা প্রকাশ করেছেন মৃত কলেজশিক্ষার্থীর বড় বোন।
সায়েম সোবহান আনভীর। ছবি: সংগৃহীত

‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’ মামলার অভিযুক্ত বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরকে এখনো গ্রেপ্তার না করায় হতাশা প্রকাশ করেছেন মৃত কলেজশিক্ষার্থীর বড় বোন।

২১ বছর বয়সী ওই শিক্ষার্থীকে ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’র অভিযোগে তার বোন গত ২৬ এপ্রিল আনভীরের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা করেন। এজাহারে তিনি বলেছেন, আনভীরের সঙ্গে তার বোনের ‘সম্পর্ক’ ছিল।

শিক্ষার্থীর বড় বোন বলেন, ‘পুলিশ সম্পর্কের প্রমাণ পেয়েছে। আনভীর যে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছেন, সেই প্রমাণও পেয়েছে। কিন্তু, তাকে এখনো গ্রেপ্তার করেনি তারা।’

এর আগে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগের ডেপুটি কমিশনার সুদীপ চক্রবর্তী সাংবাদিকদের বলেন, কলেজশিক্ষার্থী তার ডায়েরিতে তাদের সম্পর্ক, সম্পর্কের সামাজিক স্বীকৃতিতে বাধা, অভিযুক্তের সঙ্গে তার সুখী দাম্পত্য জীবনের প্রত্যাশা ও অভিযুক্তের পরিবারের বাধার বিষয়ে লিখে গেছেন। ডায়েরিগুলোতে তার চরম হতাশার বর্ণনা রয়েছে এবং এগুলো মামলাটাকে প্রতিষ্ঠিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরও বলেন, ‘প্রয়োজনীয় সব প্রমাণ পাওয়া গেলে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে ভেবে দেখা হবে।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারের বিষয়টি নির্ভর করবে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্তের ওপর।

গতকাল শুক্রবার এক বিবৃতিতে শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচার নিশ্চিতের দাবি জানায় বাংলাদেশ মানবাধিকার ফোরাম (এইচআরএফবি)।

বিবৃতিতে বলা হয়, অভিযুক্ত অনেক প্রভাবশালী হওয়ায় মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার নিয়ে জনমনে সংশয় ও উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। ২০টি মানবাধিকার ও উন্নয়ন সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত এই ফোরামের আশঙ্কা, অভিযুক্ত অত্যন্ত প্রভাবশালী হওয়ায় মামলার তদন্ত ও বিচার বাধাগ্রস্ত হতে পারে বলে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অতীত অভিজ্ঞতায় দেখা গেছে, নানা পর্যায়ে প্রভাব খাটিয়ে আইন ও বিচার ব্যবস্থার ফাঁকফোকর গলে অপরাধীরা পার পেয়ে যান। এই মামলার পরিণতি সেদিকে যাওয়া উচিত নয়।

এতে বলা হয়, ‘আনভীরের দেশত্যাগের কোনো প্রমাণ নেই। কিন্তু, পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেনি। এতে ন্যায়বিচারের বিষয়ে উদ্বেগ আরও বাড়ছে।’

শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানায় এইচআরএফবি।

এ ছাড়া, একজন অভিজ্ঞ, দক্ষ, সৎ ও নিরপেক্ষ পুলিশ কর্মকর্তার ওপর এ ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়ার আহ্বান জানানো হয় ফোরামের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি এইচআরএফবি গণমাধ্যমকেও আইন মেনে ও মানদণ্ড বজায় রেখে সংবাদ প্রকাশের আহ্বান জানায়।

আরও পড়ুন:

‘গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ আছে কলেজশিক্ষার্থীর ডায়েরিতে’

বসুন্ধরা এমডির আগাম জামিন শুনানি হচ্ছে না

আগাম জামিন আবেদন করলেন সায়েম সোবহান আনভীর

বসুন্ধরার এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

গুলশানে ফ্ল্যাট থেকে কলেজ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

Comments

The Daily Star  | English

Broadband internet restored in selected areas

Broadband internet connections were restored on a limited scale yesterday after 5 days of complete countrywide blackout amid the violence over quota protest

4h ago