স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চালুসহ ৫ দফা দাবি পরিবহন মালিক সমিতির

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে দূরপাল্লার বাস চালু, গণপরিবহন মালিকদের সহজ শর্তে পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দেওয়াসহ পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি, বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।
ছবি: সংগৃহীত

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে দূরপাল্লার বাস চালু, গণপরিবহন মালিকদের সহজ শর্তে পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দেওয়াসহ পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি, বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এসব দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাহজাহান খান পাঁচ দফা দাবি উপস্থাপন করেন।

দাবিগুলো হলো— স্বাস্থ্যবিধি মেনে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে দূরপাল্লার পরিবহনসহ সব গণপরিবহন ও স্বাভাবিক পণ্য পরিবহন চালু; লকডাউনে কর্মহীন শ্রমিকদের ঈদের আগে আর্থিক অনুদান ও খাদ্য সহায়তা প্রদান এবং যানবাহন মেরামত, কর্মচারী ও শ্রমিকদের বেতন-ভাতা, ঈদ বোনাস দেওয়ার জন্য নামমাত্র সুদে ও সহজ শর্তে মালিকদের পাঁচ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্রদান; সারা দেশে বাস ও ট্রাক টার্মিনালগুলোতে ১০ টাকায় ওএমএস চাল বিক্রি করতে হবে।

এ ছাড়া, কোভিড-১৯ এর কারণে গণপরিবহন ব্যবসায় অর্থ বিনিয়োগের বিপরীতে সব ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণ সুদ মাফ ও কিস্তি আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত করতে হবে। সেই সঙ্গে দুই শতাংশ ডাউনপেমেন্ট নিয়ে ক্লাসিফায়েড ঋণগুলো আনক্লাসিফায়েড করতে হবে।

পঞ্চম দফায় গাড়ির ট্যাক্স টোকেন, রুট পারমিটসহ সব ধরনের ফি মাফ করে কাগজ হালনাগাদ করার জন্য ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দিতে হবে।

শাজাহান খান বলেন, আমাদের দাবিগুলো বাস্তবায়ন করা না হলে ঈদের সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সারা দেশে বাস ও ট্রাক টার্মিনালগুলোতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। এরপর পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এ সময় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি মসিউর রহমান রাঙ্গা, মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ, শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী উপস্থিত ছিলেন।

Comments