ইসরায়েলি পুলিশের হামলায় আহত ৩ শতাধিক ফিলিস্তিনি

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর ইসরায়েলি পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাস, হাত বোমা ও রাবার বুলেটে তিন শতাধিক বিক্ষোভকারী আহত হয়েছেন।
ছবি: এপি

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর ইসরায়েলি পুলিশের ছোড়া কাঁদানে গ্যাস, হাত বোমা ও রাবার বুলেটে তিন শতাধিক বিক্ষোভকারী আহত হয়েছেন।

সোমবার কয়েক দফা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার পর বিবদমান অঞ্চলটিতে ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনাস্থলে থাকা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) ফটোসাংবাদিক জানান, মুসলিম ও ইহুদিদের কাছে পবিত্রভূমি হিসেবে পরিচিত আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণের কাছে বেশ কিছু কাঁদানে গ্যাসের শেল ও হাতবোমা নিক্ষেপ করা হয়।

এ সময় সোনালি গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদ প্রাঙ্গণ ধোঁয়ায় ভরে যায় এবং চত্বরজুড়ে নিক্ষেপ করা পাথর ছড়িয়ে পড়ে।

ফিলিস্তিনি রেডক্রিসেন্টের হিসাব মতে, সংঘর্ষে ৩০৫ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি প্রতিবাদকারী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২২৮ জনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। সাত জনের অবস্থা গুরুতর।

এছাড়া পুলিশ জানিয়েছে, ২১ জন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকা থেকে নতুন করে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করা হবে বলে আশঙ্কা ছড়ানোর পর এই উত্তেজনা শুরু হয়।

রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা উপলক্ষে অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে হাজারও ফিলিস্তিনি জড়ো হন। এসময় তাদের ওপর হামলা চালায় ইসরায়েলি পুলিশ।

গত দুই দিনের সংঘর্ষে শনিবার ১৭৮ ফিলিস্তিনি ও রবিবার ৮০ জন ইসরায়েলি পুলিশের হামলায় আহত হন।

সোমবার বার্ষিক জেরুজালেম দিবস উপলক্ষে পতাকা মিছিলের আয়োজন করে ইহুদি জাতীয়তাবাদীরা। ১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধে পূর্ব জেরুজালেম দখল স্মরণে এই দিবস পালন করা হয়। আশঙ্কা করা হচ্ছে দিনটিকে ঘিরে সেখানে নতুন করে আরও সহিংসতা হতে পারে।

আরও পড়ুন:

ইসরায়েলি পুলিশের দ্বিতীয় দিনের হামলায় ৮০ ফিলিস্তিনি আহত

ইসরায়েলি পুলিশের হামলায় ১৭৮ ফিলিস্তিনি আহত

Comments

The Daily Star  | English

Iran's President Raisi, foreign minister killed in helicopter crash

President Raisi, the foreign minister and all the passengers in the helicopter were killed in the crash, senior Iranian official told Reuters

3h ago