ব্যাটে-বলে সাকিবের নিবিড় অনুশীলন

প্রতিযোগিতামূলক কোন ম্যাচ খেলেছিলেন এক মাসেরও বেশি সময় আগে। সব শেষ ২০ দিনে অনুশীলনও করা হয়নি
Shakib Al Hasan
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

প্রতিযোগিতামূলক কোন ম্যাচ খেলেছিলেন এক মাসেরও বেশি সময় আগে। সব শেষ ২০ দিনে অনুশীলনও করা হয়নি। প্রস্তুতির ঘাটতিতে থাকা সাকিব আল হাসান বুধবার লম্বা সময় ধরে ব্যাট-বলে নিবিড় অনুশীলন চালিয়েছেন। এমনকি দলের সবাই হোটেলে ফিরে যাওয়ার পরও তিনি একাই বোলিং মেশিনে ব্যাট করেছেন অতিরিক্ত ৪০ মিনিট।  

আগেভাগে কোয়ারেন্টিন শেষ করায় মঙ্গলবারই মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এসে অনুশীলনে যোগ দিয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু বৃষ্টির কারণে সেদিন ওয়ার্মআপে হালকা ফুটবল খেলা ছাড়া কিছুই করা যায়নি।

আজ সকাল সাড়ে দশটায় দলের অনুশীলন শুরু হলে হালকা ওয়ার্মআপ করেই সাকিব ছুটে যান ইনডোরে। প্রথমেই লম্বা সময় ধরে বল করতে দেখা যায় তাকে। ব্যাটসম্যানদের বল করার পর কোচ মিজানুর রহমান বাবুলকে নিয়ে করেন স্পট বোলিং।

ব্যাটিং অনুশীলনের শুরুতে সেন্টার উইকেটে তাসকিন আহমেদ আর শহিদুল ইসলামের পেস খেলেছেন এই বাঁহাতি। তবে তাসকিনের বাড়তি লাফানো বলে একাধিকবার পরাস্ত হতে দেখা গেছে তাকে। শহিদুলের স্লোয়ার বলে তিন ওভারের মধ্যে দুই বার উঠান সহজ ক্যাচ।

সেন্টার উইকেটের পর ইনডোরেও ছুটেন যান ব্যাট করতে। সেখানে খেলেছেন মূলত স্পিনারদের। মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, নাসুম আহমেদদের বলে রিভার্স সুইপ, স্কুপের অনুশীলন করেন। লম্বা সময়ের জড়তা স্পিনের বিপক্ষেও ধরা পড়ে। ম্যাচ প্রেক্ষিত চিন্তা করলে মিড অফ, পয়েন্ট, স্কয়ার লেগের দিকে একাধিক ক্যাচ উঠেছে।

ব্যাটিংয়ের এই খামতিতে মনে সংশয় থেকে গিয়েছিল। অতৃপ্তি ছিল অনুশীলনে। দুপুরে অনুশীলন সেরে দলের সবাই হোটেলে ফিরে যাওয়ার পরও আরও ৪০ মিনিট ইনডোরে বোলিং মেশিনে ব্যাট করেছেন এই তারকা। 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে সাকিব তার পছন্দের প্রিয় ব্যাটিং পজিশন ফিরে পাচ্ছেন। ম্যাচেও লম্বা সময় ব্যাট করার সুযোগ তার সামনে। পুরো প্রস্তুত হতে আরও তিনদিন পাচ্ছেন বাংলাদেশের সফলতম ক্রিকেটার। বৃহস্পতিবার বিকেএসপিতে নিজেদের মধ্যে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ছন্দ আনতে সেই ম্যাচের দিকেই নিশ্চিত চোখ থাকবে সাকিবের।

২৩ মে মিরপুরে প্রথম ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা। ২৫ ও ২৮ মে একই ভেন্যুতে সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ। ওয়ানডে সুপার লিগের অংশ হওয়ায় সিরিজটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের। সাকিবের ব্যাট-বলের দিকেও দলের প্রত্যাশা সবচেয়ে বেশি।

Comments

The Daily Star  | English

Finance is key to Bangladesh’s energy transition

Bangladesh must invest more in renewable energy and energy efficiency to reduce fossil fuel imports to reverse the increasing trajectory of the subsidy burden.

7h ago