সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা, ঢাবি শিক্ষক সমিতির নিন্দা

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা, শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। সেইসঙ্গে সচিবালয়ের মতো জায়গায় এ ধরেন ঘটনায় নিন্দা জানানো হয়।
সচিবালয়ে দীর্ঘ সময় আটকে রাখায় একসময় অসুস্থ হয়ে পড়েন রোজিনা ইসলাম। ফাইল ছবি/ সংগৃহীত

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা, শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। সেইসঙ্গে সচিবালয়ের মতো জায়গায় এ ধরেন ঘটনায় নিন্দা জানানো হয়।  

আজ বুধবার দুপুরে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক নিজামুল হক ভূইয়ার সই করা বিবৃতিতে এসব কথা জানানো হয়।

এছাড়াও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচিবের সাক্ষাৎ প্রার্থীদের অপেক্ষমান কক্ষে কোনো রাষ্ট্রীয় স্পর্শকাতর গোপন নথি অন্যের দৃশ্যমানতায় রাখা কর্তব্য অবহেলার শামিল বলে মন্তব্য করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নেতারা।

বিবৃতিতে বলা হয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দাবি অনুসারে ওই সাংবাদিক স্বাস্থ্য সচিবের একান্ত সচিবের কক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয় গোপন নথি সরিয়েছেন এবং অনুমতি না নিয়ে নথির ছবি তুলেছেন। কিন্তু সচিবের একান্ত সচিবের কক্ষ, যেখানে সচিবের সঙ্গে সাক্ষাৎ প্রার্থীরা অপেক্ষমান থাকেন, সেখানে কোনো রাষ্ট্রীয় স্পর্শকাতর গোপন নথি অন্যের দৃশ্যমানতায় রাখা কর্তব্য অবহেলার শামিল। এ ঘটনায় জনমনে প্রশ্ন জেগেছে যে, ব্যক্তির অনিয়মের গোপন তথ্য রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে কিনা? সম্প্রতি এই সাংবাদিক স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে রাষ্ট্রের স্বার্থকে সমুন্নত করলেও কারও কারও বিরাগভাজন হয়েছেন।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সমাজের যে কোনো অসঙ্গতি তুলে ধরাই গণমাধ্যমের কাজ। আর পেশাগত দায়িত্বপালনে ত্রুটি-বিচ্যুতি হলে রাষ্ট্রের প্রচলিত আইনানুসারে সুরাহা হওয়া বাঞ্ছনীয়। কিন্তু সাংবাদিক রোজিনাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা ও অসুস্থ হওয়ার পরও সচিবালয়ের মতো রাষ্ট্রের শীর্ষ প্রশাসনিক দপ্তরে দীর্ঘসময় ধরে আটকে রেখে মানসিকভাবে নির্যাতনের ঘটনা চরম অপেশাদারিত্ব, কর্তৃত্ববাদী ও অসৌজন্যমূলক মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ।

শিক্ষক সমিতি জানায়, এ ঘটনা সাধারণ মানুষের কাছে এবং বহির্বিশে বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিদ্যমান স্বাধীনতা সম্পর্কে একটি ভুল বার্তা দিচ্ছে। আমরা আশা করবো সরকার তার গৃহীত পদক্ষেপের মাধ্যমে এটিকে একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা হিসেবে প্রমাণ করবেন।

মুক্ত গণমাধ্যমের পরিপন্থি সকল প্রতিবন্ধকতা অপসারণের আহবান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ ও অভিযুক্ত সাংবাদিকের আইনগত সুরক্ষা ও মানবাধিকার নিশ্চিত করার দাবি জানাচ্ছে।”

অন্যদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিও একই ঘটনার নিন্দা ও বিচার দাবি করে বিবৃতি দিয়েছে৷

আরও পড়ুন-

রোজিনাকে নিপীড়ন ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে প্রেসক্লাবের সামনে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

রোজিনা ইসলামের প্রতি আচরণ স্বাধীন সাংবাদিকতার টুঁটি চেপে ধরার নামান্তর: টিআইবি

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিয়ে রিপোর্ট করায় আমার সঙ্গে অন্যায় করা হচ্ছে: রোজিনা

কারাগারে নেওয়া হচ্ছে সাংবাদিক রোজিনাকে

সাংবাদিক রোজিনার রিমান্ড নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

সাংবাদিক রোজিনা আদালতে, ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন

সাংবাদিক রোজিনার বিরুদ্ধে অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা

সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তা: শাহবাগ থানার সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে থানায় নেওয়া হয়েছে

Comments

The Daily Star  | English

Breaking barriers through arts and crafts

Persons with disabilities excel with DRRA support

14m ago