বাংলাদেশ

লকডাউনের প্রথম দিনে জনশূন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জের সড়ক

চাঁপাইনবাবগঞ্জে লকডাউনের প্রথম দিন আজ মঙ্গলবার রাস্তায় লোকজন নেই। শহরের ব্যস্ততম এলাকাগুলো প্রায় জনশূন্য।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে লকডাউন। স্টার ফাইল ছবি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে লকডাউনের প্রথম দিন আজ মঙ্গলবার রাস্তায় লোকজন নেই। শহরের ব্যস্ততম এলাকাগুলো প্রায় জনশূন্য।

শহরের পুরাতন বাজার, বড় ইন্দিরা মোড়, ভিসি মার্কেট এলাকা, নিউ মার্কেট এলাকা, অক্ট্রয় মোড়, বিশ্ব রোড মোড় ঘুরে দুই-একটি রিকশা বা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা দেখা গেছে। লোক চলাচল করতে দেখা গেছে খুবই কম। এমনকি, পুরাতন বাজারের কাঁচা বাজারেও ক্রেতা দেখা গেছে অল্প সংখ্যক।

সম্প্রতি, জেলায় সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গতকাল সোমবার দুপুরে ডিসি অফিসের কনফারেন্স রুমে এক বৈঠকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পর জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ সাতদিনের লকডাউন ঘোষণা করেন।

লকডাউন ঘোষণায় অনেকেই মনে করছেন এতে করোনা সংক্রমণ অনেক কমবে আসবে।

শহরের চরজোতপ্রতাপ এলাকার বাসিন্দা ও স্কুল শিক্ষক রওনক আরা দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘খুব খারাপ পরিস্থিতির দিকে যাচ্ছিল। সবাই সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে এত খারাপ পরিস্থিতি হতো না।’

‘স্থানীয় প্রশাসন লকডাউন ঘোষণা করায় আশাকরি পরিস্থিতি ভালো হবে,’ যোগ করেন তিনি।

মাছ বিক্রেতা আইয়ুব আলী ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘লকডাউনের প্রথম দিন বাজারে একেবারেই ক্রেতা নেই। ব্যবসা খুব খারাপ যাচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘লকডাউনের কারণে ব্যবসায় সাময়িক ক্ষতি হলেও করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে আমাদের সবার তা মেনে নেওয়া উচিত।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সিভিলে সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আশা করি, লকডাউন দেওয়ার পর করোনা সংক্রমণ অনেক কমবে।’

পুলিশ সুপার আব্দুর রকিব ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘লকডাউন সফল করতে পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা করেছে।’

জেলার বিভিন্নস্থানে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

Dhaka airport's terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully open in October, multiplying the passenger and cargo handling capacity.

2h ago