মেজাজ হারানোর শাস্তি পেলেন তামিম

আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত না মেনে মাঠেই মেজাজ হারিয়ে ফেলেছিলেন তামিম ইকবাল, ব্যবহার করেন অপ্রীতিকর ভাষাও
Tamim Iqbal

আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত না মেনে মাঠেই মেজাজ হারিয়ে ফেলেছিলেন তামিম ইকবাল, ব্যবহার করেন অপ্রীতিকর ভাষাও। এর শাস্তিও পেলেন বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক।

শনিবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার তৃতীয় ম্যাচে  আউট হয়ে বাজে আচরণ করেছেন তামিম। আম্পায়ারের উদ্দেশে ‘ব্যবহার অনুপযুক্ত’ ভাষায় প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তিনি।

আর এতে আইসিসি আইনের লঙ্ঘন হওয়ায় তার ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। সঙ্গে যোগ হয়েছে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট।

বাংলাদেশ ইনিংসের দশম ওভারের ঘটনা। শ্রীলঙ্কার দেওয়া ২৮৭ রানের লক্ষ্য তাড়ায় তখন নাঈম শেখ ও সাকিব আল হাসানকে হারিয়ে বিপদে বাংলাদেশ। দুশমন্ত চামিরার ফুল লেংথের একটি ডেলিভারি ড্রাইভ খেলতে গিয়ে পারেননি তামিম। কট বিহাইন্ডের জোরালো আবেদন করে শ্রীলঙ্কা। আম্পায়ার শরফুদৌল্লা সৈকত তাতে সাড়াও দেন। তাৎক্ষণিকভাবে রিভিউ নেন তামিম।

কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় একই সঙ্গে ব্যাট মাটিতে লেগেছে, আবার বলও স্পর্শ করতে পারে। বল ব্যাট স্পর্শ করছে না, এমন স্পষ্ট প্রমাণ না পাওয়ায় মাঠের আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন টিভি আম্পায়ারও। ১৭ রানে আউট হতে হয় তামিমকে।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের পরই ক্ষেপে যান বাংলাদেশ অধিনায়ক। ব্যাট দিয়ে আঘাত করেন মাটিতে। তখন আগ্রাসী শরীরী ভাষায় তাকে কিছু একটা বলতেও দেখা যায়।

তামিমের এই আচরণে অসন্তুষ্ট হয়ে দুই আম্পায়ার ম্যাচ রেফারির কাছে অভিযোগ করেন। ম্যাচ শেষে ম্যাচ রেফারি নিয়ামুর রশিদ রাহুলের কাছে দোষ স্বীকার করে নেন তামিম। ফলে আর শুনানির প্রয়োজন হয়নি।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগেই সিরিজ জিতে নিয়েছিল বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে লঙ্কানদের কাছে হারে ৯৭ রানের বিশাল ব্যবধানে। ওয়ানডে সুপার লিগে এই সিরিজ থেকে ৩০ পয়েন্টের মধ্যে বাংলাদেশ অর্জন করে ২০ পয়েন্ট।

Comments

The Daily Star  | English