নেইমারকে কোপায় খেলতে রাজী না হওয়ার অনুরোধ

আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ায় আসন্ন কোপা আমেরিকার আসর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে দুটি দেশই আয়োজকের তালিকা থেকে বাদ পড়ে। নতুন স্বাগতিক দেশ হিসেবে ব্রাজিলের নাম ঘোষণা করেনে কনমেবল। তাতে এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা বেড়েছে অনেক। অনেকেই এর তীব্র বিরোধিতাও করেছেন। এমনকি ব্রাজিলের তারকা খেলোয়াড় নেইমারকে এ আসরে না খেলার অনুরোধ জানিয়েছেন দেশটির সিনিয়র সিনেটর ওত্তো আলেনকার।
ছবি: সংগৃহীত

আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ায় আসন্ন কোপা আমেরিকার আসর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে দুটি দেশই আয়োজকের তালিকা থেকে বাদ পড়ে। নতুন স্বাগতিক দেশ হিসেবে ব্রাজিলের নাম ঘোষণা করে কনমেবল। তাতে এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা বেড়েছে অনেক। অনেকেই এর তীব্র বিরোধিতাও করেছেন। এমনকি ব্রাজিলের তারকা খেলোয়াড় নেইমারকে এ আসরে না খেলার অনুরোধ জানিয়েছেন দেশটির সিনিয়র সিনেটর ওত্তো আলেনকার।

রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে প্রথমে গত ২০ মে স্বাগতিক তালিকা থেকে আগেই নিজেরদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় কলম্বিয়া। তাতে পুরো আসর হওয়ার কথা ছিল আর্জেন্টিনায়। কিন্তু ক্রমেই দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সেখানে এ আসর আয়োজন না করার সিদ্ধান্ত নেয় কনমেবল। ২৪ ঘণ্টা না যেতেই বেছে নেয় ব্রাজিলকে। কিন্তু সেখানে কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার আরও বেশি। মূলত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো টুর্নামেন্টটি আয়োজন করতে সম্মত হওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেয় কনমেবল।

এ আসরে দর্শকদের মাঠে ঢোকার অনুমতি মিলছে না বলে জানিয়েছেন বোলসোনারো। রিও দি জেনেরিওসহ কমপক্ষে ছয়টি ষ্টেটে খেলা হবে বলেও জানান তিনি। ব্রাসিলিয়ায় মঙ্গলবার সমর্থকদের ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, 'আমি এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী সহ সমস্ত মন্ত্রীরাই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শুরু থেকেই আমি এ মহামারি সম্পর্কে বলেছি: মৃত্যুর জন্য আমি দুঃখিত, কিন্তু আমাদের বাঁচতে হবে।'

কিন্তু দেশের আইনজীবীদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে সরকারের এ সিদ্ধান্ত। একজন সিনেটর ও সোসিয়াল ডেমোক্রেটিক পার্টির সদস্য আলেনকার তো নেইমারকে আসরে না খেলার অনুরোধ করেছেন, 'নেইমার, আমি তোমাকে কিছু বলতে চাই: ব্রাজিলে এই কোপা আমেরিকা অনুষ্ঠিত হওয়ার পক্ষে তোমার একমত হওয়া উচিত নয়! এতে রাজী হবে না। এখন এই চ্যাম্পিয়নশিপ নয় যা আমাদের প্রতিযোগিতা করা দরকার, আমাদের এখন টিকা চ্যাম্পিয়নশিপে প্রতিযোগিতা করা দরকার।'

উল্লেখ্য, ব্রাজিলে করোনাভাইরাস ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৪ লাখ ৬৩ হাজার। দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যায় লাতিন আমেরিকার সর্বোচ্চ এবং বিশ্বে দ্বিতীয়। তাই এমন সময়ে এ আসর আয়োজনের কারণ বোলসোনারোকে পাঁচ দিনের মধ্যে জানাতে বলেছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

Comments

The Daily Star  | English

Situation still tense at Shanir Akhra

Protesters, cops hold positions after hours of clashes; one feared dead; six wounded by shotgun pellets; Hanif Flyover toll plaza, police box set on fire

6h ago