কোভিড-১৯

যশোর ও নওয়াপাড়া পৌর এলাকায় বুধবার থেকে বিধিনিষেধ

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বুধবার রাত থেকে যশোর ও অভয়নগরের নওয়াপাড়া পৌর এলাকা বিধিনিষেধের আওতায় আসছে। জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা থেকে আজ এই সিদ্ধান্ত এসেছে।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বুধবার রাত থেকে যশোর ও অভয়নগরের নওয়াপাড়া পৌর এলাকা বিধিনিষেধের আওতায় আসছে। জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা থেকে আজ এই সিদ্ধান্ত এসেছে।

জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে আজ জেলা করোনা প্রতিরোধ কিমিটি সভা করে। সভায় পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, পৌরসভার মেয়র হায়দার গণী খান পলাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান জানান, যশোর পৌর এলাকা ও অভয়নগরের নওয়াপাড়া পৌর এলাকায় প্রতিদিন শনাক্তের হার বাড়ছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে যশোর পৌর এলাকা ও নওয়াপাড়ার দুইটি ওয়ার্ডের চলমান বিধিনিষেধ সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিগগিরই এ বিষয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে।

সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে সভায় জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় যশোরে নতুন করে ১২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ২৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৪২ শতাংশ। আগের সোমবার শনাক্তের হার ছিল ২৯ শতাংশ।

সিদ্ধান্ত হয়, যশোর ও নওয়াপাড়া পৌর এলাকায় মোটরসাইকেলে একজন, রিকশায় একজন এবং অটোরিকশায় দুইজনের বেশি চলাচল করতে পারবে না।

যশোরে মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে করোনা শনাক্তের হার বৃদ্ধি পায়। জুন মাসের শুরুতেও শনাক্তে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা যায়। গত ৩ জুন শনাক্তের হার ছিল ২৫ শতাংশ। ৪ জুন কমে দাঁড়ায় ২৩ শতাংশ। ৫ জুন ছিল ২০ শতাংশ। ৬ জুন সেটা বেড়ে দাঁড়ায় ২৩ শতাংশে। ৭ জুন তা আরও বেড়ে হয় ২৯ শতাংশে। আর আজ মঙ্গলবার সেটা বেড়ে ৪২ শতাংশ হয়েছে।

জেলায় এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৯৫৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন ৮৩ জন। যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৫৭ জন।

Comments

The Daily Star  | English
Fire incident in Dhaka Bailey Road

Death is built into our cityscapes

Why do authorities gamble with our lives?

8h ago