খেলা

শেষ ওভারের নাটকীয়তার পর জিতল প্রাইম ব্যাংক

রুবেল হোসেনের শেষ ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বি চার ছক্কায় ম্যাচ যে প্রায় জিতিয়েই ফেলেছিলেন!
 Kamrul Islam Rabbi
শেষ ওভারে চার ছক্কার পথে কামরুল ইসলাম রাব্বি। ছবি: ওয়ালটন

মনে হচ্ছিল শেষ ওভারটি কেবলই আনুষ্ঠানিকতা।  ম্যাচ জিততে প্রাইম দোলেশ্বরের শেষ ৬ বলে দরকার ছিল ৩১ রানের। হাতে আছে কেবল ১ উইকেট। কিন্তু ওই অবস্থা থেকেও হলো নাটকীয়তা।  রুবেল হোসেনের শেষ ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বি চার ছক্কায় ম্যাচ যে প্রায় জিতিয়েই ফেলেছিলেন!

বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে শেষ পর্যন্ত ৩ রানে জিতেছে প্রাইম ব্যাংক। প্রাইম ব্যাংকের করা ১৫১ রানের জবাবে দোলেশ্বর যেতে পেরেছে ১৪৮ রান পর্যন্ত।

শেষ ওভারের অমন তাণ্ডবে মাত্র ১২ বলে ৩৮ রান করেন কামরুল। প্রথম ৩ ওভারে মাত্র ১৯ রান দেওয়া রুবেল শেষ ওভারেই দেন ২৭ রান।

রুবেলের ওই ওভারের প্রথম বল থেকে আসে ছক্কা। পরের বলে ২ রান। পরের তিন বলেও ছক্কা মারেন কামরুল। শেষ বলে বাউন্ডারির চাহিদা আর মেটানো যায়নি।  রোমাঞ্চকর জয়ে দোলেশ্বরকে টপকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেও উঠেছে প্রাইম ব্যাংক।

অথচ দারুণ বল করে মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলামরা দলকে অনায়াসে জেতার অবস্থায় নিয়ে গিয়েছিলেন। ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন মোস্তাফিজ। শরিফুল ৪ ওভারে ২ উইকেট পেতে দেন মাত্র ১৫ রান। রুবেলেও প্রথম ৩ ওভারে ২ উইকেট পেয়েছিলেন। কিন্তু শেষ ওভারে গিয়ে তার বোলিং ফিগার হয়ে যায় এলোমেলো।

১৫২ রানের লক্ষ্য নেমে আগ্রাসী ওপেনার ইমরানুজ্জামানকে ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই হারায় দোলেশ্বর। মোস্তাফিজের বলে বোল্ড হয়ে যান তিনি। সাইফ হাসানকে তুলে নেন রুবেল। মার্শাল আইয়ুব দলের চাহিদা মেটাতে পারছিলেন না। তার ২৪ বলে ২২ রানের ইনিংস থামে নাঈম হাসানের বলে। ২৫ বলে ২১ করা ফজলে মাহমুদ শিকার অলক কাপালির।

যার উপর বড় ভরসা সেই শামীম পাটোয়ারিও এদিন ব্যর্থ। রান আসেনি অধিনায়ক ফরহাদ রেজার ব্যাটেও। একপেশে হয়ে পড়া ম্যাচ শেষ ওভারে গিয়ে চমক দেখিয়ে জমিয়ে দিয়েছিলেন কামরুল। যদিও শেষ বলে বাউন্ডারি মারার চাহিদা পূরণ করতে পারেননি।

এর আগে প্রাইম ব্যাংকের শুরুটা হয়েছিল বাজে। রনি তালুকদার কোন রান করতে পারেননি। ব্যর্থ হন তামিম ইকবাল (১২ বলে ৮)। এনামুল হক বিজয়কে পাওয়া গিয়েছিল ছন্দে। কিন্তু শুরুটা এনেও (১৮ বলে ২৯) টানতে পারেননি ইনিংস।

শুরুতে নেমে আগ্রাসী ব্যাট চালিয়ে থিতু হওয়া মোহাম্মদ মিঠুন পরে দলের অবস্থা বুঝে নেন ধীর অ্যাপ্রোচ। ইনিংসের একদম শেষ ওভারে আউট হওয়ার আগে ৫০ বলে ৫৫ রান করেছেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তবে দলের রান দেড়শো ছাড়িয়ে গেছে মূলত অলকের ছোট্ট ঝড়ে। সাতে নেমে অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান ১৪ বলেই করেছেন ২৬ রান।

 

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

7h ago