বাংলাদেশ

নির্বাচনের গুরুত্ব আলাদা—করোনার চেয়েও বেশি: সিইসি

নির্বাচনের কারণে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঘটার কথা স্বীকার করেন না প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। তার দাবি, নির্বাচন করোনাভাইরাস ছড়ানোর একমাত্র কারণ নয়। এর ১০০টি কারণের মধ্যে নির্বাচন একটি কারণ হতে পারে। নির্বাচনের গুরুত্ব করোনার চেয়েও বেশি।
বরিশালে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে আজ বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। ছবি: টিটু দাস

নির্বাচনের কারণে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঘটার কথা স্বীকার করেন না প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। তার দাবি, নির্বাচন করোনাভাইরাস ছড়ানোর একমাত্র কারণ নয়। এর ১০০টি কারণের মধ্যে নির্বাচন একটি কারণ হতে পারে। নির্বাচনের গুরুত্ব করোনার চেয়েও বেশি।

আজ দুপুরে বরিশাল সার্কিট হাউজে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এই কথা বলেন সিইসি।

যুক্তি হিসেবে তিনি বলেন, ‘রাজশাহীতে নির্বাচনের প্রস্তুতি নেই সেখানে করোনা সংক্রমণ বেশি, বরিশালে নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে সেখানে করোনার সংক্রমণ কম। সব দেশেই নির্বাচন হচ্ছে। করোনার কারণে নির্বাচন বন্ধ থাকেনি, নির্বাচনের গুরুত্ব আলাদা—করোনার চেয়েও বেশি।’

বরিশাল বিভাগে প্রথম ধাপে ১৭৩টি ইউনিয়ন পরিষদ, ও একটি পৌরসভায় নির্বাচন হবে আগামী ২১ জুন। এ উপলক্ষে আজ সকালে বরিশাল সার্কিট হাউজে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

মাঠ পর্যায়ের নির্বাচন কর্মকর্তারা সিইসিকে বলেন, কিছু কিছু এলাকায় সহিংস পরিস্থিতি রয়েছে। আগের নির্বাচনেও এসব এলাকায় সহিংসতা হয়েছে। অনেক সময় দুর্গমতার কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় বলে তারা সিইসিকে জানান।

সিইসি তাদের উদ্দেশে বলেন, কে কোন দলের তা বিবেচনা করা হবে না। আচরণবিধি ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়া প্রসঙ্গে সিইসি বলেন—এটা আমার মুখ থেকে না শোনাই ভালো। আমরা নির্বাচনের ম্যানেজার। কে প্রার্থী হবেন কে প্রত্যাহার করবেন এটা নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়।’

নির্বাচন কমিশনারদের বিরুদ্ধে গুরুতর অসদাচরণ এবং দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ৪২ নাগরিকের বিবৃতি প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ‘তারা অসত্য বলেছেন। আমরা ইতোমধ্যে আমাদের বক্তব্য দিয়ে দিয়েছি, যা প্রকাশিত হয়েছে। তারা “পলিটিকাল মোটিভেটেড” বক্তব্য দিয়েছেন।’

আর এনআইডি সম্পর্কে সিইসি বলেন, এটা আমাদের কাছেই থাকা উচিত। এ বিষয়ে আমরা প্রস্তাব দিয়ে রেখেছি।

Comments

The Daily Star  | English

Complete waste removal on 2nd day of Eid: DNCC

Dhaka North City Corporation has removed 100 percent of the waste generated during Eid-ul-Azha

20m ago