জিম্বাবুয়েতে লকডাউনে খেলাধুলাও বন্ধ, সংশয়ের দোলাচলে বাংলাদেশের সিরিজ

করোনাভাইরাসের কারণে জিম্বাবুয়েতে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য লকডাউন ঘোষণা দিয়েছে সেদেশের সরকার। লকডাউনের আওতায় আছে সব ধরণের ক্রীড়া কার্যক্রমও

করোনাভাইরাসের কারণে জিম্বাবুয়েতে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য লকডাউন ঘোষণা দিয়েছে সেদেশের সরকার। লকডাউনের আওতায় আছে সব ধরণের ক্রীড়া কার্যক্রমও। এতে সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে-এ ও দক্ষিণ আফ্রিকা-এ দলের চলমান চারদিনের ম্যাচও। আগামী মাসে দেশটিতে তিন সংস্করণের পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে যাওয়ার কথা বাংলাদেশের।

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, চলমান জিম্বাবুয়ে-এ ও দক্ষিণ আফ্রিকা-এ দলের খেলা ও প্রতিশ্রুত আন্তর্জাতিক সিরিজের প্রস্তুতি চালু রাখার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছে তারা। খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফদের সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা রেখে খেলাধুলা চালু রাখতে তারা একাগ্র।  

করোনাভাইরাসের সময়েও জৈব সুরক্ষা বলয় করে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট চালু রেখেছে জিম্বাবুয়ে। তাদের আশা দর্শকবিহীন মাঠে সব ধরণের সুরক্ষা নিয়ে খেলাধুলা চালু রাখতে তারা সক্ষম।

তবে সব কিছু নির্ভর করছে দেশটির সরকারের অনুমতির উপর। তবে সিরিজ হওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। লকডাউনের খবর শুনে জিম্বাবুয়েতে যোগাযোগ করার পর সেই কথাই জানালেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘করোনার সংক্রমণের ফলে ওদের সরকার সব ধরণের স্পোর্টস বন্ধ করেছে। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড আমাদের জানিয়েছে তারা ক্রিকেট চালিয়ে নিতে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করছে। ওদের সিইও’র সাথে সকালে আমার কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন তারা সরকারের সঙ্গে সিরিজ আয়োজনের লক্ষ্যে আলোচনা করছে এবং তারা আশাবাদী। আমরা তাদের সাথে যোগাযোগ রাখছি। তারা সিরিজ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী। ’

জুন মাসের শেষ দিকে জিম্বাবুয়েতে খেলতে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। চারদিনের ম্যাচ দিয়ে সফর শুরুর পর বুলাওয়েতে একমাত্র টেস্ট খেলার কথা মুমিনুল হকদের। এরপর স্বাগতিকদের বিপক্ষে হারারেতে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলার কথা বাংলাদেশের।

বাকি বিশ্বের তুলনায় করোনাভাইরাসে জিম্বাবুয়েতে আক্রান্তের সংখ্যা কম। এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তে হয়েছে ৪০ হাজারেরও কম মানুষ। মৃত্যু হয়েছে দুই হাজারেরও কম। 

Comments

The Daily Star  | English
62% young women not in employment, education

62% young women not in employment, education

Three out of five young women in Bangladesh were considered NEETs (not in employment, education, or training) in 2022, a waste of the workforce in a country looking to thrive riding on the demographic dividend, official figures showed.

8h ago